রহিতা ভেমুলারা দেশের সর্বত্রই বঞ্চনার শিকার

রহিত ভেমুলার মৃত্যুর পর দেশের একটা অংশ প্রতিবাদে সামিল হয়েছেন। বিক্ষোভ আন্দোলন চলছে। কিন্তু দলিতদের উপর বঞ্চনা বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। রহিত ভেমুলার মত সবাই হয়তো আত্মহত্যা করতে বাধ্য হন না কিন্তু তাঁরা জীবনযাপন করছেন এক অশনীয় পরিবেশের মধ্যে

 মুম্বইয়ে এরকমই আরেকটি ঘটনা সামনে এলো। মুম্বইয়ে চার চারটে ডিগ্রি থাকা সত্ত্বেও জঞ্জাল সাফাই কর্মী হিসাবে কাজ করে চলেছেন ৩৬ বছরের সুনীল যাদব। জঞ্জলসাফাই কর্মী বলেও ঠিক বলা হয় না। আন্ডার গ্রাউন্ড ড্রেন সাফাই কর্মী হলেন সুনীল। BA, BCOM, MA(দুটি বিষয়) করার পর সুনীল এখন টাটা ইনস্টিটিউটে MPHIL করছেন। সুনীলের আক্ষেপ এই কাজটি দলিতদের জন্য ১০০ শতাংশ সংরক্ষিত করা আছে।যদিও ২০১৩ সাল থেকে মানুষকে দিয়ে সরাসরি পরিস্কারের জন্য মল মূত্র বহন করা নিষিদ্ধ হয়ে গেছে । কিন্তু বাস্তবটা পাল্টায়নি এতটুকু। মিডিয়ায় সুনীলের বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হওয়া ওঁর হয়তো কিছু দরজা খুলতে পারে কিন্তু ওই পেশার সঙ্গে যুক্ত মানুষগুলোর দিন কি এতটুকু পাল্টাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *