কানহাইয়াকে খোলা চিঠি

0
4

                       কানহাইয়াকে খোলা চিঠি

জেল থেকে জামিনে ছাড়া পাওয়ার পর আপনার বক্তব্য অনেককেই উজ্জীবিত করেছে। মিডিয়া আপনার মধ্যে এক আগামী দিনের নেতাকে খুঁজে পেয়েছে। আপনি মোদি সরকারের বিরুদ্ধে অত্যন্ত তীক্ষ্নভাবে সরব হয়েছেন। বুঝিয়ে দিয়েছেন আপনাকে যারা দেশদ্রোহী বলছে তারা আসলে মানুষের রুটি-রুজির লড়াইকে গুলিয়ে দিতে চাইছে। ভারত থেকে আজাদি নয়, ভারতের মধ্যে আজাদির দাবি তুলেছেন আপনি। আপনি JNUSU এর নেতা। আপনার গ্রেফতারের পর একই অভিযোগে গ্রেফতার হয়ে রয়েছেন  আপনারই বিশ্ববিদ্যালয়ের আরো দুই ছাত্র। উমর খালিদ ও অনির্বাণ ভট্টাচার্য। আপনি আপনার দেওয়া কোন সাক্ষাত্কারেই খুব জোরালভাবে তাঁদের মুক্তির দাবি তোলেননি। অথচ আপনি জেলে থাকার সময় JNUSU  ওই দাবি করেছিল। কেন? তাঁদের মুক্তির দাবিতে সরব হলে কি আপনার উপর চাপ আসতে পারে সেই কারণেই  আপনি  বিষয়টি আদালতের উপর ছেড়ে দেওয়ার কৌশল  নিয়েছেন। আপনি কি জানেন না এদেশে বিচার ব্যবস্থাও সমাজের বাইরে নয়। তাকেও  প্রভাবিত করার চেষ্টা হতে পারে। তাছাড়া এক সময়তো প্রশান্ত ভূষণ ও তাঁর পিতা অভিযোগ করেছিলেন সুপ্রিম কোর্টের একাধিক প্রধান বিচারপতি দুর্নীতিগ্রস্ত।আমি আশা করবো আমি আশা করবো আপনি এবার উমর ও অনিবার্ণদের মুক্তির দাবিতে সরব হবেন। কারণ ক্যাম্পাসে যদি শ্লোগান দিলে( তাও আবার প্রমাণিত নয়!) কেউ দেশদ্রোহী হয় তাহলে কাশ্মীরে পিডিপির সঙ্গে  সরকার গড়ার জন্য  বিজেপির নেতাদের কি জেলে যাওয়া উচিত নয়? আপনি ঠিকই বলেছেন দেশের শাসকরা বিভেদ তৈরির চেষ্টা করছে। আপনাদের শক্তি হল একতার। তাই জেল বন্দি দুই ছাত্রের মুক্তির দাবিতে আপনি মুখর হবেন।

                                               শুভেচ্ছা সহ

বিপ্লব মুন্সি