নারদকে তথ্য দিল কে? ঘরের কেউ নয় তো?

নারদের স্টিংকে ষড়যন্ত্র, কুত্সা ইত্যাদি বললেও এর সত্যতা যাচাইয়ের দাবি করছে না তৃণমূল। ভুয়ো বলে উড়িয়ে দিয়ে এর ফরেনসিক যাচাই না করায় তৃণমূলের ভাspan বমূর্তি যে অনেকেটাই ড্যামেজ হয়েছে তা বুঝতে বিশেষজ্ঞ হওয়ার দরকার নেই।কিন্তু নারদের সাংবাদিক ম্যাথু স্যামুয়েলকে এই তথ্য দিল কে? ম্যাথু স্যামুয়েল যত বড় সাংবাদিকই হোন না কেন দিল্লি থেকে উড়ে এসে এরাজ্যে যোগাযোগ বার করে একার পক্ষে এই স্টিং করা প্রায় অসম্ভব। দলের মধ্যে থেকে কেউ তাঁকে টিপ দেয়নি তো? তৃণমূল সুপ্রিমো নারদ স্টিংকে কুত্সা বললেও তিনিও নিশ্চয় ভাবছেন কে নারদ তথা ম্যাথু স্যামুয়েলকে এই যোগাযোগ বা খবর দিল। ম্যাথু স্যামুয়েল অবশ্য জানিয়েছেন ইকবাল আহমেদ তাঁকে অনেকের সঙ্গে যোগাযোগ করিয়ে দিয়েছেন, কিন্তু একা ইকাবলের কি এতটা ক্ষমতা বা দুঃসাহস হবে? নাকি দলের মধ্যেই রয়েছে আরো প্রভাবশালী কেউ। যে নারদকে জাল বলে দাবি করছেন তৃণমূলের কোন কোন নেতা তাঁদের ভুললে চলবে না ম্যাথু স্যামিয়েল কয়েক মাস আগেও তৃণমূল সাংসদ কেডি সিংয়ের( ট্যুবরো ও অ্যালকামিস্ট চিটফান্ডের জনক) নিয়ন্ত্রণাধীন তেহেলকা পত্রিকার সম্পাদক ছিলেন।