রাজ্যে ‘অবাদ ও শান্তিপূর্ণ’ ভোটের বলি ৩

রাজ্যে তৃতীয় দফার ( ৪ দিন) ভোটে ডোমকলে একজন সিপিএম এজেন্ট খুন  হওয়ার পর বর্ধমানের খণ্ডঘোষে কুপিয়ে খুন করা হল ২ সিপিএম কর্মীকে। মারধর, হুমকির সঙ্গে কানকেটে নেওয়া হয়েছে এক বিরোধী দলের লোকের।সব ক্ষেত্রেই অভিযুক্ত শাসকদল। ( এর আগেও মারা গেছে একাধিক জন। তবে সে সব যেহেতু ভোটের দিনে নয়, তাই তা গণনার বাইরে।) টেলিভিশনের টক শোতে গেল গেল রব। নির্বাচন কমিশনের মান্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠে গেছে ইতিমধ্যেই। বিরোধীরা অবশ্য বলছেন এরাজ্যে ভোটে হিংসা যেন এই প্রথম। ২০০৮ সালের পঞ্চায়ে ভোটে মুর্শিদাবাদেই একদিন মারা গিয়েছিলেন ১৯জন। আর ২০০৩ সালের রাজ্যের পঞ্চায়েত ভোটের বলি ১০৭জন।