২ সেপ্টেম্বর ধর্মঘট কেন?

একদিনের বনধে কী  হয় তা নিয়ে বিতর্ক চলছে। রাজ্য সরকার বনধ ব্যর্থ করতে হুুঁশিয়ারি দেয়েছে। যারা বনধ ডেকেছে তারাও বিষয়টিকে রুটিনে পরিণত করেছে। তাই  আগামি ২ সেপ্টেম্বর ট্রেডইউনিয়নগুলোর ডাকে দেশজুড়ে কেন বনধ তা বোধ হয় জানেন না অনেক শ্রমিক- কর্মচারীই। একাধিক ইস্যুতে ডাকা এই বনধের অন্যতম দাবি হল ন্যূনতম বেতন মাসে ১৮ হাজার টাকা করতে হবে। দাবিটা আদায় হোক না হোক ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় সরকার নূন্যতম মজুরি দৈনিক ২৪৬ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৩৫০টাকা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যদিও কেরল ও দিল্লিতে ইতিমধ্যেই ন্যূনতম  মজুরি কেন্দ্রের বর্দ্ধিত মজুরির চেয়ে বেশি। কাজের দিন ২৬টি ধরলে কেন্দ্রের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ন্যূনতম মাসিক  বেতন হবে ৯১০০ টাকা। এই টাকায় কি আজ একটা সংসার চালানো সম্ভব? অন্যদিকে আজও খাস কলকাতায় সারাদিন খেটে ২০০ টাকাও পাননা অনেকে। খোদ মিডিয়াতেই অনেকের বেতন মাসে ৬০০০ -৭০০০ হাজার টাকা।

,