অর্থের জোরেই কি সুব্রত রায়দের প্যারোলের সময়সীমা বাড়ে, উঠছে প্রশ্ন?

লোকে বলে পয়সা যার আইন -আদালত তার নাকি পকেটে। সাহারার সুব্রত রায়ের ক্ষেত্রে কথাটা কি মিথ্যে? তানাহলে একবার জেলে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়ার পর কী করে ফের সুব্রত রায়ের প্যারোলের সময় বাড়িয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট। আগামী ২৪ অক্টোবর পর্যন্ত সুব্রত রায়ের প্যারোলের( প্যারোল কেন? মা তো মারা গেছেন গত মে মাসে!) সময় ফের বাড়িয়ে দিল সর্বোচ্চ আদালত।

আইনকে বুড়ো আঙ্গুল দেখানো সাহারার সুব্রত রায়ের অভ্যাসে পরিণত হয়ে গেছে। আর তাই সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশকে অমান্য করায়  সুব্রত রায়কে জেলে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছিল সর্বোচ্চ আদালত। অবশ্য তার আগে ২৮ সেপ্টেম্বর  সুব্রত রায়ের প্যারলোর সময়সীমা বাড়ানোর শুনানির দিন ধার্য্য হয়।

  আদালতের নির্দেশ মেনে সেবির সঙ্গে সহযোগিতা করেননি সুব্রত রায়ের সাহারা। বরং যে সম্পত্তি সেবি বাজেয়াপ্ত করেছে আগেই তা বিক্রি করার বিষয় কোর্টে সম্পত্তির তালিকা পেশ করেছে সাহারা গোষ্ঠী। মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী গত শুনানির সময় এতেই চটে যান বিচারকরা। এর পরই সুব্রত রায়ের প্যারোল ও অন্তর্বর্তী জামিন বাতিল করে তাকে ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে তিহাড়ে ফেরত পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছিল সর্বোচ্চ আদালত। ওই টুকুই।ফের বাড়িয়ে দেওয়া হল প্যারোলের সময়সীমা। আপাতত জেলের বাইরেই সুব্রত রায়।

,