সাজার বিরুদ্ধে ২০ হাজার মারুতি শ্রমিকের ১ ঘন্টার কর্মবিরতি

0
9

মারুতির প্রাক্তন শ্রমিকদের সাজার আদেশের বিরুদ্ধে প্রায় ২০ হাজার মারুতি শ্রমিক শনিবার রাতে  ১ঘন্টার কর্মবিরতি পালন করলেন।The Hindu পত্রিকায় প্রকাশিত খবর অনুযায়ী ম্যানেসরের মারুতি কারখানার লাগোয়া ও মারুতির সহযোগী কারখানার শ্রমিকরা ৬টি ইউনিয়নের ডাকে সাড়া দিয়ে এই কর্মবিরতি পালন করেন। ইউনিয়নের তরফে জানান হয়েছে এই অঞ্চলে শ্রমিকদের লড়াইকে স্তব্ধ করতেই সরকার ষড়যন্ত্র করে এই সাজা করিয়েছে। ইউনিয়ন নেতাদের দাবি ম্যানেজারের মৃত্যুকে ঢাল করে শ্রমিকদের আন্দোলনকে দমন করতে চাইছে মালিকপক্ষ।  ২০১২ সালে হরিয়ানার ম্যানেসরে মারুতির কারখানায় গন্ডগোল ও ম্যানেজার খুনে দোষী ১৩জন শ্রমিককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিল গুরুগাঁওয়ের আদালত। ওই ঘটনায় ৩১জন মারুতির প্রাক্তন শ্রমিককে দোষী সাব্যস্ত করেছিল  আদালত। ৪ জনের ৫ বছরের কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত। বাকিরা ইতিমধ্যেই সাড়ে ৪ বছর জেলে থাকায় ২৫০০ টাকা করে জরিমানা দিয়ে ছাড়া পাবেন। যদিও ঘটনার জেরে গ্রেফতার করা হয়েছিল ১৫০জন শ্রমিককে। ২০১২ সালে ম্যানেজারের সঙ্গে বচশা হাঙ্গামায় রূপ নেয়। ম্যানেজারকে ঘরে বন্ধ করে পুড়িয়ে মারে শ্রমিকরা। ম্যানেজমেন্টের অভিযোগ রড , লাঠি নিয়ে হামলা শুরু করে শ্রমিকরা। ইউনিয়নের তরফে দাবি করা হয়েছে  কারখানার গেট বন্ধ করে বাউন্সার দিয়ে শ্রমিকদের উপর প্রথমে হামলা করে ম্যানেজমেন্ট। আর তাতেই ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন শ্রমিকরা। মারুতি কারখানায় শ্রমিকদের বঞ্চনার দীর্ঘদিনের অভিযোগ দীর্ঘদিনের। ঠিকা শ্রমিক দিয়ে কারখানা চালানো মারুতির কৌশল। স্থায়ী ও ঠিকা শ্রমিকদের মধ্য বেতন বৈষম্য প্রায় ৩গুন। এর জেরেও অসন্তোষ ছিল শ্রমিকদের মধ্যে। তাছাড়া শ্রমিকদের ইউনিয়ন করাও নাকি ভাল চোখে দেখেনি মারুতি ম্যানেজমেন্ট।