চিকিত্সকদের আড়াল করতে হাইকোর্টের দ্বারস্থ MCI?

বেসরাকরি হাসপাতালগুলোর পাশাপাশি চিকিত্সকদের বিরুদ্ধেও অভিযোগ ভুরিভুরি। আর এই সব অভিযোগ ক্ষতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা মেডিক্যাল কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়া  সংক্ষেপে MCI এর। কিন্তু সর্ষের মধ্যেই যদি ভূত থাকে তাহলে কী হবে! চিকিত্সকদের বিরুদ্ধে যে সব অভিযোগ MCI এর কাছে দায়ের হয়েছে সেই সম্পর্কে তারা কী ব্যবস্থা নিয়েছে তা জানাতে সম্প্রতি নির্দেশ দেন কেন্দ্রীয় তথ্য কমিশনার। এর মধ্যে রয়েছে MCI এর প্রাক্তন কর্তা কেতন দেশাই (যিনি ঘুষ নিয়ে মেডিক্যাল কলেজের অনুমোদন দিতে গিয়ে CBI এর হাতে গ্রেফতার হন) এর বিরুদ্ধে কী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে তাও জানাতে বলা হয়। কিন্তু তা যাতে জানাতে হয় তার জন্য দিল্লি হাইকোর্টে গিয়ে স্থগিতাদেশ নিয়েছে  MCI । অন্তত এমনটাই অভিযোগ পিপলস ফর বেটার ট্রিটমেন্টের কুণাল সাহার। স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে  এই নৈরাজ্যের দায় সরকার এড়াতে পারে কি? যতদিন না স্বাস্থ্যক্ষেত্রে সরকারি ব্যয় বৃদ্ধি হবে ,গড়ে তোলা হবে পর্যাপ্ত পরিকাঠামো ততদিন চিকিত্সার নামে মানুষের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলা চলবেই।