নমমী গঙ্গেঁ,গঙ্গাঁর কতটা শুদ্ধি আনবে

ভারত সরকারের উদ্যোগে নদী পরিচ্ছন্নতার এক পরিকল্পনা গ্রহন করা হয়েছে  দেশ জুড়ে।এই পরিকল্পনাকে সাধারণভাবে সাধুবাদই দেওয়া উচিত,এদেশের গঙ্গা যে ভাবে প্রতিদিন দুষিত হচ্ছে তাতে তার প্রতিকারে না নামলে সাধারণ নাগরিক জীবনেই অনেক সমস্যা দেখা দেবে অচিরেই,সেই সূত্রে ভারত সরকারের এই উদ্যোগ সময়-উপযোগী বলা যায়।গত ১৬ থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত এ রাজ্যের বিভিন্ন নদী শুদ্ধিকরণের  দিন ধার্য করা হয়েছিল,সরকারের পক্ষ থেকে এই উদ্যোগের নামকরণ করা হয়েছে নমমী গঙ্গেঁ।গত ২৯ মার্চ নবদ্বীপ গঙ্গাঁ শুদ্ধিকরণ কর্মপ্রয়াস প্রত্যক্ষ করতে খুবই আগ্রহ নিয়ে হাজির হয়েছিল এই প্রতিবেদক,যেহেতু বিষয়টির সঙ্গে একটা সামাজিক দায় জরিত।দেখা গেল গঙ্গাঁ বক্ষে প্রদীপ জ্বালানো,মাঙ্গলিক মন্ত্র উচ্চারণ,আর আমন্ত্রীত কয়েকজনের বক্তৃতা ছাড়া তেমন কিছুই হল না।স্থানীয় প্রশাসনের কোন প্রতিনিধি নেই,নেই এমনকী স্থানীয় মানুষজনও,এই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত করতে দরকার মানুষের দৈনন্দিন প্রয়াস,এলাকার প্রশাসনের সক্রীয় উদ্যোগ,কিন্তু তার কিছুই চোখে পড়লো না।বরং অনুষ্ঠান এলাকা জুরে পরে থাকতে দেখা গেল খাবারের  প্যাকেট,জলের বোতল,যে গুলো হয়তো কিছু সময় পড়েই আবার নদীতে মিশে যাবে।প্রশ্নটা তাই উঠছে এই উদ্যোগ কী সত্যি গঙ্গাঁর দুষন আটকাতে কোন সহায়ক ভূমিকা নেবে,নাকি গোটাটাই ধর্মীয় ভাবাবেগে সুড়শুড়ি দিয়ে ভোট হাতাবার তাল?—নবদ্বীপ থেকে তরিত ভৌমিকের প্রতিবেদন।