কঠিন সময়ে জনসাধরণের ঐক্য চাই

গোটা রাজ্য জুরেই ধর্মীয় উন্মাদনা ছড়ানোর একটা প্রয়াস শুরু হয়েছে,যেন রাজ্যবাসীর সামনে আর কোন সমস্যা নেই,যেন দারিদ্রের সমস্যা ঘুচে গেছে,যেন রাজ্যে আর কোন বেকার নেই,যেন শিক্ষার অভাব নেই,স্বাস্থ্য পরিষেবা নিয়েও যেন কারোর কোন অভিযোগ নেই,সবার যেন এখন একটাই ইচ্ছে রাম আর হনুমানের মহিমা কীর্তনে বেড়িয়ে পরা,অন্তত কিছু রাজনীতিকদের কীর্তি কলাপ দেখে সেরকমই মনে হচ্ছে।রামনবমী আর হনুমান পুজোকে কেন্দ্র করে যে হুজুক বিতর্ক শুরু হয়েছে তাতে নিজেদের একবিংশ শতাব্দীর নাগরিক বলে ভাবতেই কষ্ট হয়।আধুনিকতা মানে তো এগিয়ে চলা,পৌরাণিক যুগে পেছিয়ে যাওয়া তো নয়,আসলে ক্ষমতার কারবারী যে সব রাজনীতিক তারা নিজেদের সংকীর্ণ স্বার্থের জন্যই মানুষকে দিয়ে চেতনার দাসত্ব করাতে চান,বিজ্ঞান যুক্তি থেকে মানুষকে দুরে রাখতে চান।এই সময় তাই মানুষের চেতনায় শান দেওয়ার সময়,চারপাশটাকে নিজের যুক্তি বুদ্ধি দিয়ে মূল্যায়ন করার সময়,মানুষে মানুষে জোট বাধাঁর সময়।সাধারণ মানুষের জোটই একমাত্র এই কঠিন সময়ের মোকাবিলা করতে পারে।