ভাঙড়ের মিছিলে বিমান বসুদের সামিল হওয়ায় উঠছে প্রশ্ন?

0
6

মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা মত ভাঙড় থেকে পাওয়ার গ্রিড তুলে নেওয়া, আন্দোলনকারীদের মুক্তি সহ একাধিক দাবিতে সোমবার  রাজভবন অভিযান করল জমি জীবিকা,বাস্তুতন্ত্র ও পরিবেশ রক্ষা কমিটি ও সংহতি কমিটি।  আন্দোলনের নেতা অলীক চক্রবর্তী আগেই  জানিয়েছিলেন দ্বিতীয় দফা ৭ দিন অবস্থান বিক্ষোভ করার পর প্রশাসনের তরফে কোন সাড়া না পাওয়ায় তারা এই রাজভবন অভিযানের ডাক দিয়েছেন। কিন্তু অনেকেই প্রশ্ন তুলছেন সিঙ্গুর-নন্দীগ্রামের কৃষকদের রক্ত লেগে থাকা সিপিএম নেতা বিমান বসু সহ  অন্যন্য বামফ্রন্টের নেতারা এই মিছিলে সামিল হলেন কী করে? সংগঠকদের পক্ষ থেকে অমিতাভ ভট্টাচার্য জানিয়েছেন সিঙ্গুর নন্দীগ্রাম ও ভাঙড়ের আন্দলোনের সমর্থনে রাখা শ্লোগানকে মর্যদা দিয়ে যারা মিছিলে এসেছেন তাদের সবাইকে স্বাগত।  গত ১৭ জানুয়ারি ভাঙড়ে পাওয়ার গ্রিড বিরোধী আন্দোলন চলাকালীন ২ জন গুলিতে নিহত হন। সেই সময় মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন স্থানীয়রা না চাইলে ভাঙড়ে পাওয়ার গ্রিড হবে না। যদিও কোন লিখিত ঘোষণা এখনও পর্যন্ত করা হয়নি। বরং একের পর এক গ্রেফতার করা হচ্ছে আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত নেতা কর্মীদের। গ্রেফতার করা হচ্ছে UAPA এর মত মারাত্মক কালা আইনে। বাদ যাচ্ছেন না APDR এর কর্মীরাও।