ব্যাঙ্কের ৯হাজার কোটি টাকা প্রতারণা করেও ক্রিকেট মাঠে বিজয় মালিয়ার ‘রাজসিক’ উপস্থিতি

0
15

আইনের চোখে নাকি সবাই সমান,সেখানে নাকি বিরাজ করে অবাধ সাম্য।অথচ চোখের সামনে নানা ঘটনা দেখিয়ে দেয়,সমাজের প্রভাবশালী অর্থবানদের জন্য আইনের বিচার একরকম আর প্রভাব প্রতিপত্তিহীন গরীব মানুযের জন্য আইনের বিচার একেবারে অন্যরকম।এদেশে বিস্কুট চুরির দায়ে এক বিস্কুট কারখানার শ্রমিককে জেল খাটতে হয়,তা নিয়ে সংবাদমাধ্যমে খবরও হয়।আবার অন্য দিকে এদেশের সরকারি ব্যাঙ্কের ৯হাজার কোটি টাকা ঋণ শোধ না করেও গায়ে হাওয়া লাগিয়ে দিব্যি ঘুরে বেড়াতে পারেন বিজয় মালিয়ার মতো ঠক ব্যবসায়ীরা।প্রধানমন্ত্রী বার বার কালো টাকা নিয়ে কথা বলেন,অথচ তাঁর সরকার কেন বিজয় মালিয়ার মতো কালো ব্যবসায়ীকে কব্জা করতে পারল না এতদিনে,তার কোন জুতসই উত্তর নেই।বার বার চেষ্টা করেও তাকে গ্রেপ্তার করে এদেশে আনা যাচ্ছে না কেন?কিছুদিন আগে বজয় মালিয়াকে ভারতীয় তদন্তকারী দল গ্রেপ্তার করার কয়েক ঘন্টার মধ্যেই বৃটেনের এক আদালত থেকে বিজয় মালিয়া জামিন নিয়ে নেন।তাকে গ্রেপ্তার করে কবে এ দেশে নিয়ে আসা যাবে তা নিয়ে ঘোর সংশয় রয়েছে।আইনের কোন যুক্তি বলে এদেশের ৯হাজার কোটি টাকা প্রতারনার অভিযোগে অভিযুক্ত এক ব্যক্তি জেলের বাইরে দিনের পর দিন রাজসিক জীবন যাপন করতে পারেন?রবিবার বিদেশের মাটিতে ভারত পাকিস্তান ক্রিকেট ম্যাচ দেখতে উপস্থিত ছিলেন  বিজয় মালিয়া।তার চেহারায় উদ্বেগ-চিন্তার কোন লেশ মাত্র নেই,দিব্যি রাজসিক মেজাজে ক্রিকেটের মজা নিচ্ছিলেন তিনি।আইনের চোখে সবাই সমান এই আপ্ত বাক্য যাঁরা আওড়ান,রবিবার ক্রিকেট মাঠে,এদেশের ৯হাজার কোটি টাকার প্রতারনার মামালায় অভিযুক্ত বিজয় মালিয়ার রাজসিক উপস্থিতি তাঁদের একটু লজ্জা দিল কি?