আধার তথ্য সংশোধন! ‘সরকারি নজরদারির’ অংশ হতে নাগরিকদের হেনস্তা?সমাধান কীভাবে

কেন্দ্র প্রথমে বলেছিল সরকারি ভরতুকি পেতে আধারকে বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে। কারণ তাতে করে সঠিক ব্যক্তিদের কাছে ভরতুকি পৌঁছে দেওয়া সম্ভব হবে। ক্রমশ জনজীবনের সব স্তরে আধারকে বাধ্যতামূলক করে দিচ্ছে সরকার। কখনও আদলতের নির্দেশ আধার চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে নাগরিকদের উপরও। এরকমই একটা পদক্ষেপ হল আধার -প্যান সংযুক্তি করণ। কিন্তু কেন আধারের সঙ্গে প্যানকে সংযুক্তি করতে হবে তার কোন ব্যাখ্যা নেই। অন্যদিকে আধার কার্ড ও প্যানের তথ্যে অনেকের অমিল থাকায় সংযু্ক্তি করা যাচ্ছে না। কখনও তা আধার নথিভুক্ত করার সময় আধিকারিকের ভুলের কারণে । বা বিয়ের পর মহিলাদের পদবির পরিবর্তন ইত্যাদির জন্য প্যান ও আধারে নাম ও ঠিকানার অমিল থেকে যাচ্ছে। আর তা সংশোধন করতে হলে  আধারে টেলিফোন নম্বর থাকা বাধ্যতামূলক। অথচ প্রথম দিকে আধারে টেলিফোন নম্বর বাধ্যতামূলক না করায় অনেকেই তা নথিভুক্ত করাননি। ফলে  অনলাইনে আধার সংশোধন করা যাচ্ছে না। এদের  UIDAI ওয়েবসাইটে গিয়ে আধার তথ্য সংশোধনের ফর্ম ডাউনলোড করে তা পূরণ করে নির্দিষ্ট ঠিকানায় পাঠাতে হবে। কিন্তু অনেকের যেটা প্রশ্ন সরকারি নজরদারির অংশ হতে নাগরিককে এতটা হেনস্তার শিকার হতে হবে কেন?