উত্তরপ্রদেশে ৬০ শিশু মৃত্যুর পিছনে এনসেফেলাইটিস টিকাকরণে সরকারি ব্যর্থতাকে আড়াল করা হচ্ছে না তো?

0
12

৪৮ ঘন্টায় শুধুমাত্র ৩০জন শিশুর মৃত্যু নয়, গোরক্ষপুরের বাবা রাঘব দাস হাসপাতালে  গত ৫ দিন মারা গেছে ৬০জন শিশু। মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের  নির্বাচনী এলাকার একটি হাসপাতালে এতজন শিশু মৃত্যুর ঘটনায় অস্বস্তিতে প্রশাসন। তড়িঘড়ি তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য সরকার। তবে সরকারের তরফে অক্সিজেন সরবরাহে ঘাটতি থাকায় এত শিশুর মৃত্যুর খবরকে উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। যদিও মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী গত ১০ তারিখে মৃত্যু হয় ২৩জন শিশুর। এই দিন বকেয়া বিল না মেটানোতে অক্সিজেন সরবরাহকারী সংস্থা হাসপাতালে অক্সিজেন পাঠান বন্ধ করে দেয়। সরকারি হাসপাতালে অবহেলা বা পরিকাঠামোর অভাবে মৃত্যু বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। এবারের শিশু মৃত্যুর সঙ্গে অক্সিজেন সরবরাহ না থাকাও একটা বাড়তি কারণ হতে পারে।  তবে মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী মৃত শিশুরা জাপানি এনসেফেলাইটিসে আক্রান্ত ছিল। উত্তরপ্রদেশে প্রতি বছর জাপানি এনসেফেলাইটিসে মারা যায় বহু শিশু। ২০০৫ সালে মৃত্যু হয়েছিল সবথেকে বেশি, ১৫০০ শিশুর।  গত বছর ওড়িশাতেও অন্তত ১০০ জন শিশুর মৃত্যু হয়েছে জাপানি এনসেফেলাইটিসে। অথচ সঠিক টিকাকরণের অভাবে দশকেরে পর দশক ধরে হাজার হাজার শিশু জাপানি এনসেফেলাইটিসে মারা যাচ্ছে  হয় পূর্ব  উত্তরপ্রদেশে না হয় বিহার বা ওড়িশাতে। বিষয়টা জনস্বাস্থের। আরো স্পষ্ট করে বললে দেশের গরীবের। আর তাই হয়তো ভোটের সময় ছাড়া বিষয়টা ইস্যু হয় না!