সু্প্রিম কোর্টের রায়ের পরও কি সুরক্ষিত থাকবে ব্যক্তিগত গোপনীয়তার অধিকার?

0
8

ব্যক্তিগত গোপনীয়তার বিষয়টি নাগরিকের মৌলক অধিকারের মধ্যেই পড়ে, সর্বসম্মত ভাবে জানিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্টের ৯ সদস্যের বেঞ্চ। সেই সঙ্গে প্রায় সর্বক্ষেত্রে আধার নম্বরকে বাধ্যতামূলক করার কেন্দ্রের সিদ্ধান্তও ধাক্কা খেল। তবে এদিনের রায় বিভিন্ন আর্থিক বিষয় আধারকে বাধ্যতামূলক করার সরকারের সিদ্ধান্ত সঠিক কিনা তা স্পষ্ট করা হয়নি। তবে প্রশ্ন উঠছে ইতিমধ্যেই নানা বেসরকারি সংস্থার কাছে আধার নম্বর জমা দিতে হয়েছে বহু মানুষকে। সেটা কি ব্যক্তিগত গোপনীয়তায় হস্তক্ষেপ নয়? সুপ্রিম কোর্টের এই রায় আরো একটি বিষয়কে সামনে আনল। তাহল সর্বোচ্চ আদালতের রায় সব সময় সঠিক হয় না। কারণ এর আগে দুবার এই বিষয় ঠিক উল্টো রায় দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। সেই সঙ্গে এটাও ভুললে চলবে না মৌলিক অধিকার মানেই তা সুরক্ষিত থাকবে এর গ্যারান্টি  নেই। তার উপর ‘আইনগ্রাহ্য নিয়ন্ত্রণ’ করতে পারে সরকার। তাছাড়া সব সরকারই  ছলে বলে কৌশলে নাগরিকের মৌলক অধিকার হরণ করার চেষ্টা আগেও করেছে আগামী দিনেও করবে। আধারের ক্ষেত্রেও তার ব্যতিক্রম হবাব নয়। তা সত্ত্বেও এই রায় কেন্দ্রের কাছে ধাক্কা।