রাজ্য প্রশাসনের বিরুদ্ধেই ষড়যন্ত্রের পাল্টা অভিযোগ মোর্চার

0
5

 

পাহাড়ে পর পর তিনবার বিস্ফোরণের ঘটনায় গুরুংদের দায়ী করে রাজ্য সরকার যখন তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার দিকে এগুতে শুরু করেছে,তখন মোর্চা নেতৃত্ব এই ঘটনার পেছনে রাজ্য সরকারের ষড়যন্ত্র আছে বলে প্রটার শুরু করে দিল।রবিবার মোর্চার নেতা রোশন গিরি জানালেন যেভাবে বেশ কিছুদিন ধরেই তাদের আন্দোলনের সঙ্গে মাওবাদীদের যোগ নিয়ে রাজ্য প্রশাসন মিথ্যে প্রচার শুরু করে দিয়েছিল,তাতে তারা আশঙ্কা করছেন এই বিস্ফোরণের পেছনে রাজ্য প্রশাসনের ভূমিকাও থাকতে পারে।রোশন গিরি ইঙ্গিত করেন মাওবাদী যোগ প্রমাণ করতে এরকম ঘটনা ঘটিয়ে তাদের উপর চাপ তৈরির ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে,এবং কড়া আইন প্রয়োগ করে মোর্চা নেতাদের জেলে ঢোকানোর চেষ্টা চলছে।কোন রকম হিংসাত্মক ঘটনার সঙ্গে মোর্চা যোগের কথা অস্বীকর করে এদিন মোর্চার নেতৃবিন্দ দাবি করেন,তাদের লড়াই স্বাধীনতার জন্য,সাম্যের জন্য,তাই কোন হিংসা নয়  অহিংস পথেই তারা সেই দাবি আদায় করে নেবে।এদিকে রবিবারেই পাহাড়ে বিস্ফোরণের জন্য মোর্চাকে দায়ী করে গুরুং সহ একাধিক মোর্চা নেতার বিরুদ্ধে ইউএপিএ ধারায় মামলা দায়ের করেছে দার্জিলিং জেলা প্রশাসন।রাজ্য সরকারের ষড়যন্ত্র সামনে আনতে কেন্দ্রীয় গোয়ান্দা সংস্থাকে দিয়ে গোটা ঘটনার তদন্তের দাবি তুলেছে মোর্চা।বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষও পাহাড়ের বিস্ফোরণের ঘটনা কেন্দ্রীয় কোন সংস্থাকে দিয়ে তদন্তের দাবি করেছেন।গুরুংরা নিজেরা কেন নিজেদের এলাকায় বিস্ফোরণ ঘটাতে যাবে তা নিয়ে সর্বস্তরেই একটা সংশয় রয়েছে,এরই মধ্যে রাজ্য প্রশাসনের বিরুদ্ধেই ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তুলে মোর্চা সেই সংশয়কেই উসকে দিতে চাইছে বলে রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের একাংশের মত।