সিপিএমের অস্বস্তি বাড়িয়ে গেল ছাত্রনেতা কানাইয়া

0
14

সিপিএমের অস্বস্তি বাড়িয়ে গেল ছাত্রনেতা কানাইয়া কুমার।সিপিআই ছা্ত্র সংগঠনের নেতা ও জহওর লাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের প্রাক্তন সভাপতি কানাইয়া কয়েক দিনের জন্য এ রাজ্যে এসে পরিষ্কার জানিয়ে দিলেন,সিঙ্গুর নন্দীগ্রামের ঘটনার জন্য বামেদের মানুষের কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত।সিপিএম এখনও মনে করে রাজ্যে শিল্পায়নের গতিকে তরা্ণ্বিত করতে সিঙ্গুরে যেভাবে জমি নেওয়া হয়েছিল তা সঠিক ছিল। সুপ্রিম কোর্ট এ বিষয়ে তদানিন্তন রাজ্য সরকারের ভূমিকা ভুল ও জমি অধিগ্রহনের পদ্ধতি অবৈধ বলে রায় দেওয়ার পরেও সিপিএম তাদের ভুল প্রকাশ্যে স্বীকার করে নি।এমনকি নন্দীগ্রামে গুলি চালানোর ঘটনাতেও তাদের ভুল স্বীকার করতে দেখা যয়নি,উল্টে গোটাটাই বিরোধীদের চক্রান্ত ছিল বলে বার বার দাবি করে এসেছে তারা।দাপুটে ছাত্র নেতা কানাইয়া কিন্তু রাজ্যে এসে জানিয়ে দিলেন বামপন্থা মানে মানবিকতার সর্বোচ্চ স্তর,সেখানে গরিব মানুষের উপর কোন জোরজুলুম চলতে পারে না,কানাইয়া বলেন তিনি এ রাজ্যের বাম নেতা হলে মানুষের ঘরে ঘরে গিয়ে সিঙ্গুর নন্দীগ্রামের ঘটনার জন্য ক্ষমা চাইতেন।কানাইয়া কুমারের এই বক্তব্য যে রাজ্য সিপিএম নেতাদের অস্বস্তি বাড়াল তা বলাই বাহুল্য।কলকাতায় দাঁড়িয়ে এই তরুণ নেতা যখন বলেন শুধু ধর্মীয় মৌলবাদ,সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের কথা বললেই হবে না,সমাজটাকে পাল্টাতে বামপন্থীদের বামপন্থী থাকার লড়াইটাও চালিয়ে যেতে হবে,তখন বোধহয় বামেদের অন্দরমহলের মতাদর্শগত বিচ্যুতি বিষয়েই শতর্ত হওয়ার ইঙ্গিতই দিতে চান তিনি।