তালাক রোধের রায়,উসকে দিল নিকাহ ছবির স্মৃতি

সুপ্রিম কোর্টের তালাক ফরমান  রোধের রায়কে কেন্দ্র করে একসময়কার জনপ্রিয় হিন্দি ছবি নিকাহের কিছু স্মৃতি নতুন করে সামনে এল।নিকাহ ছবিটি রিলিজ করে আশির দশকের প্রথম দিকে।বিআর চোপরা পরিচালিত এই ছবিতে তেমন কোন নামজাদা,বক্স অফিস উতরে দেওয়ার মত নর্ভরযোগ্য স্টার ছিল না,তবু ছবিটি অনায়াসে গোল্ডেন জুবিলি পার করে তাক লাগিয়ে দিয়েছিল সবাইকে।ছবির বিষয়বস্তু ছিল তালাককে কেন্দ্র করে।ছবির দুই নায়ক ছিল রাজ বব্বর ও দীপক পরাশড়,আর নায়িকা করা হয়েছিল একেবারে আনকোরা নবাগতা পাকিস্থানি অভিনেত্রী সালমা আগাকে।যেহেতু কাহিনি একেবারে তালাক বিষয়টাকে মধ্যস্থ করে আবর্তিত তাই পরিচালক বিআর চোপরা প্রথমে ছবির নাম রাখেন তালাক-তালাক-তালাক।এই নাম দেখে বিআর চোপরার এক মুসলিম বন্ধু নাকি বলেন এই নাম হলে মুসলিম পরিবারের কোন পুরুষতো তাদের স্ত্রীদের ছবির নাম উল্লেখ করে ছবিটা দেখে আসতে বলতে পারবে না,এ নাম উচ্চারণ করলেই তো মুসলিম সমাজে ঘরে ঘরে বিয়ে ভাঙার হিরিক পরে যাবে।শোনা যায় চোপরা সাহেবের সেই বন্ধু খুব মজা করে বিআর চোপরাকে বলেছিলেন বিনোদন দেওয়ার নামে তুমি বাপু শেষ পর্যন্ত মুসলিমদের ঘর ভাঙার ফিকির বার করে ফেললে যে!মুসলিম বন্ধু মজা করলেও বিষয়টা ভাবায় বিআর চোপরাকে,তিনি বুঝতে   পারেন এই নামে সমস্যা সত্যি সত্যিই আছে,তাই তাড়াতাড়ি নাম বদলে নাম রাখা হয় নিকাহ।নিকাহ ছবির গল্প লিখেছিলেন অচলা নগর নামের একজন যিনি ছিলেন আদপে এক রেডিও নাট্য প্রযোজক ও নাট্যলেখক।রেডিওতেই প্রথম নিকাহর কাহিনি নিয়ে নাটক হয়।এই কাহিনি আকৃষ্ট করে বিআর চোপরাকে।চোপরা সাহেব এর পরেই অচলা নগরকে কাহিনিকে বড় করে সিনেমার উপযুক্ত করার দায়িত্ব দেন,অচলা নগরকে এই কাহিনি হিন্দি সিনেমায় প্রতিষ্ঠা দেয়।আর শোনা যায় অচলা নগর নাকি  এই কাহিনির রসদ সংগ্রহ করেছিলেন বাস্তব থেকেই।আশির দশকের গোড়ায় হিন্দি ছবির দুই মুসলিম উঠতি নায়ক নাকি বোঝাপরা করে সংস্কারের বশে নিজেদের কেরিযার নিশ্চিত করতে এভাবে একজনকে বিয়ে করে আবার তাকে তালাক দিয়ে অন্য জনের সঙ্গে বিয়ে দিয়ে আবার তালাক করিয়ে নিজে বিয়ে করে।এটা তারা করেছিলেন সংস্কারের বশে,তারা বিশ্বাস করেছিলেন এভাবে বিয়ে ভেঙ্গে আবার বিয়ে করলেই কেরিয়ারে সুস্থিতি আসতে পারে।অথচ এর প্রভাবে একটা মেয়ের জীবনে যে কী ভয়াবহ টানাপোড়েন ও বিপর্যয় নেমে আসতে পারে তা নিয়ে তারা বিন্দুমাত্র ভাবিত হয়নি।এই বিষয়টাই নিকাহ ছবির বিষয় হয়।তিন তালাকের ফরমান বাতিল হওয়ার সূত্র ধরে আবার এই সব স্মৃতি নতুন করে সিনেমা রসিক অনেককেই নষ্টালজিক করে তুলতে পারে।

আমাজনে কেনাকাটি করতে ক্লিক করুন উপরের বিজ্ঞাপনে

, , ,