পুজোতো এসেই গেল। অপ্রিয় প্রশ্নগুলো করতেই হলো

0
9

পুজো এসে গেল। বাঙালিদের শ্রেষ্ঠ উত্সব বলে চালানোর চেষ্টা চললেও দুর্গা পুজো আসলে  হিন্দু বাঙালিদের একটি ধর্মীয় উত্সব। যদিও ধর্মীয় বিষয়বস্তুকে ছাপিয়ে হইহুল্লুড়ই এর অন্যতম অঙ্গ হয়ে উঠেছে।৮ থেকে ৮০ প্যান্ডালে গিয়ে রাত জেগে ঠাকুর দেখেন। প্রতিবারের মত এবারেও শহরের বড় বড় পুজোগুলোর কোনটার ঘোষিত বাজেট  কোটি ছাড়িয়ে গেছে তো কোনটার আবার ৫০ লক্ষ।( সঠিক খরচ কেউ জানে না) কোথাও মা দু্র্গাকে ২০ কেজির সোনার অলঙ্কারে সজ্জিত করছে কোন জুয়েলার্স কোথাও বা কাঁচ দিয়ে তৈরি। এই বিপুল অঙ্কের টাকা জনগনের কাছ থেকে ১০০ টাকা চাঁদা তুলে যে হয় না তা আমরা সকলেই জানি। শুধুই কি করপোরেট স্পনশরসিপের দৌলতে  পুজো কমিটিগুলোর এত জাঁকজমক। নাকি এর পিছনে রয়েছে অন্য খেলা? কেউ এই অপ্রিয় প্রশ্ন তোলে না। ফলে উত্তর খোঁজার দায় নেই কারো। কিন্তু এই বিপুল টাকার হদিশ পাওয়া জরুরি। কারণ ফ্রি লাঞ্চ বলে কিছু হয় না। যারা টাকা দিচ্ছে তাদের উদ্দেশ্য আছে। সেটা আর যাই হোক সমাজসেবা যে নয় তা বলাই যায়। পুজোর আগে এই অপ্রিয় প্রশ্নগুলো না করলেই নয়।[amazon_link asins=’9352640942′ template=’ProductGrid’ store=’satdindotin-21′ marketplace=’IN’ link_id=’bbe70cb6-a018-11e7-a38c-f5c9332b4712′]