রাজ্য সরকারি কর্মীদের বকেয়া DA এর ১৫ % দেওয়ার ঘোষণা।” ঘেউ ঘেউ করে লাভ নেই” মুখ্যমন্ত্রী

0
9

পুজোর আগেই রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের ১৫ শতাংশ  বকেয়া ডিএ দেবার ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।বৃহস্পতিবার রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের এক সমাবেশে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়ে দিলেন রাজ্যের সরুকারি কর্মচারীদের ডিএ যে বকেয়া আছে সে বিষয়টি সম্পর্কে তাঁর সরকার অবগত,তাঁরা পুজোর আগে ১৫ শতাংশ ডিএ দিয়ে দেবার ঘোষণা করছেন।তবে বকেয়া যাবতীয় ডিএ মেটাতে সময় লাগবে। মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন ঘেউ ঘেউ করে লাভ নেই। ২০১৯ এর মধ্যে যাবতীয় বকেয়া ডিএ মেটানোর চেষ্টা হবে বলে  মুখ্যমন্ত্রীর  আশ্বাস।একই সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা কর্মীদের মাস মাইনে বন্ধ করে কোনভাবেই ডিএ মেটানো সম্ভব নয়।

মুখ্যমন্ত্রীর এরকম ঘোষণার পরই রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের একাংশ প্রশ্ন করতে শুরু করেছেন ডিএ দেওয়ার বিষয়টি কি মুখ্যমন্ত্রীর ব্যক্তিগত ইচ্ছা-অনিচ্ছার উপর নির্ভর করে নাকি এটা সরকারি বাধ্যবাধকতার আওতাভুক্ত? তাছাড়া ঘেউ ঘেউ করে লাভ নেই বলে রাজ্য সরকারি কর্মীদের কাদের সঙ্গে তুলনা করতে চাইলেন মুখ্যমন্ত্রী? সম্প্রতি হাইকোর্টের একটি মামলায় ভারপ্রাপ্ত প্রধানবিচারপতি নিশিথা মাত্রে,জানিয়েছিলেন ডিএ সরকারি কর্মচারীরা পেয়ে থাকেন,তা নিয়ে তাদের একটা আকাঙ্খাও আছে।এই মামলার পরবর্তী   শুনানি হতে চলেছে কিছুদিনের মধ্যেই সেই কারণেই হয়তো তড়িঘড়ি মুখ্যমন্ত্রী ডিএ দেওয়ার ঘোষণা করে রাখলেন,তাছাড়া সামনে পঞ্চায়েত ভোট তাই সরকারি কর্মীদের ক্ষোভ চাপা দিতেও হয়তো এতদিন পর ডিএ নিয়ে আশ্বাসবাণী শোনালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।তবে যাই হোক যে ভঙ্গিতে ডিএ নিয়ে তিনি কথা বললেন তাতে পরিষ্কার সরকারি কর্মীদের প্রাপ্যকে তিনি নিজের সদিচ্ছের প্রকাশ বলেই ভাবেন,তার বেশি কিছু নয়।