উচ্ছেদ বিরোধী মিছিল আটকে দিল পুলিশ প্রশাসন

0
2

যুবভারতীর মাঠে যুব বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচের দিনই বিধাননগর ও বেলেঘাটা এলাকা থেকে এই খেলাকে কেন্দ্র করে সৌন্দর্যায়নের লক্ষ্যে যে কয়েক হাজার বস্তিবাসী ও হকারকে উচ্ছেদ করা হয়েছে তাদের নিয়ে এক প্রতিবাদ মিছিলের ডাক দিয়েছিল,উচ্ছেদ বিরোধী প্রতিবাদী মঞ্চ।এই মঞ্চের পক্ষ থেকে রবিবার যুবভারতীতে প্রথম ম্যাচ শুরু হওয়ার আগেই শিয়ালদার বিগবাজার সংলগ্ন এলাকা থেকে উচ্ছেদ হওয়া মানুষজনকে নিয়ে বেলেঘাটা রোড ধরে এক প্রতিবাদী মিছিল করার উদ্যোগ শুরু হয়।তবে কেয়েক হাজার মানুষ সামিল হলেও পুলিশ মিছিল করতে দেয় নি।শিয়ালদাতেই মিছিল আটকে দেওয়া হয়।অসংখ্য পুলিশ মোতায়েন করে মিছিলকারীদের ব্যারিকেড করে আটকে রাখা হয়।পুলিশের ভূকিকা ছিল রীতিমতো আক্রমনাত্মক।মিছিল করতে বাধাঁ পেয়ে মিছিলের উদ্যোক্তারা শিয়ালদা চত্ত্বরেই প্রতিবাদ সভা করেন।উচ্ছেদ বিরোধী মঞ্চের পক্ষে শক্তিমান ঘোষ,রঞ্জিত শূর,মুরাদ হুসেন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।উচ্ছেদ বিরোধী বক্তারা বলেন যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একদিন যে কোন ধরনের উচ্ছেদের বিরোধী ছিলেন তিনি ক্ষমতার চেয়ারে বসেই তাঁর আগের প্রতিশ্রুতির কথা ভুলে গেছেন,শহরের উন্নয়ন ও সৌন্দর্যায়নের নামে কোন পুনর্বাসনের ব্যবস্থা ছাড়াই নির্বিচার উচ্ছেদ করে যাচ্ছে মমতার সরকার।মমতার দ্বিচারী ভূমিকার তীব্র প্রতিবাদ করে বিষয়টি নিয়ে তীব্র আন্দোলনের হুশিয়ারি দেন উচ্ছেদ বিরেধী মঞ্চের সদস্যরা।এদিনের উচ্ছেদ বিরোধী কর্মসূচিতে সামিল হন একাধিক নকশালপন্থী সংগঠনও।উচ্ছেদ বিরোধী মঞ্চের পক্ষ থেকে জানানো হয় সরকারের পক্ষ থেকে প্রচার করা হচ্ছে যে, বিদেশীদের সামনে বাংলার সম্মান নষ্ট করার চক্রান্ত হিসেবে এই প্রতিবাদ করা হচ্ছে,এটা একেবারে ঠিক নয়,তারা মনে করেন খেলার আনন্দ মত্ততার চেয়েও অনেক বড় একদল মনুষের বেঁচে থাকা,রুজিরোজগারের নিশ্চয়তা,সরকারকে,স্থানীয় পুরকর্তৃপক্ষকে তারা এবিষয়ে বিপল্প ব্যবস্থা করার জন্য বার বার আবেদন করেও ফল না পেয়ে বাধ্য হয়ে পথে নেমেছেন।এ বিষয়ে আল্দোলন যে চলতেই থাকবে তাও জানিয়ে দেন উচ্ছেদ বিরোধী মঞ্চের সদস্যরা।