ডেঙ্গিঃ চোখ বন্ধ করে কি প্রলয় ঠেকাতে চাইছেন মুখ্যমন্ত্রী?

0
16

শহর ও শহরতীল ছাড়িয়ে দেগঙ্গাতে ডেঙ্গু ও অজানা জ্বরে একের পর এক মৃত্যু হলেও তা মানতে নারাজ রাজ্য সরকার। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন ল্যাবগুলি মুনাফার জন্য জ্বরকে  অযথা ডেঙ্গি বলে দিচ্ছে। মুখ্যমন্ত্রীর দাবি গুজরাট ও অন্যরাজের তুলনায় এরাজ্যে ডেঙ্গিতে মৃত্যুর সংখ্যা নগন্য। কিন্তু চোখ বন্ধ করলে কি প্রলয় ঠেকানো যায়? কলকাতা, দক্ষিণ দমদম, বিধাননগের গত কয়েকদিনেই ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে বেশ  কয়েকজনের। বেশ কিছু এলাকায় ঘরে ঘরে ডেঙ্গিতে আক্রান্ত রোগী থাকা সত্ত্বেও তাকা চাপা দিতে চাইছে রাজ্য সরকার। নিজেদের ব্যর্থতাকে কি এইভাবে আড়াল করা যায়? তাছাড়া ডেঙ্গিতে মৃত্যুর পুরো দায়তো সরকারেরও নয়। নাগরিক সচেতনতার অভাব ও জটিল ডেঙ্গিও তো এর কারণ। কিন্তু ডেঙ্গি মোকাবিলায় ব্যবস্থা নেওয়ার পরিবর্তে কেন সরকার সেই খবর চেপে দিতে চাইছে তা বুঝে উঠতে পারছেন না অনেকেই। প্রোমোটারদের আড়াল করতেই কি সরকারের এই কৌশল? কিন্তু শুধু প্রোমোটাররাই নয়, বিভিন্ন এলাকায় খালি প্লট বা জঙ্গল ঠিক মত সাফাই হচ্ছে না। বাড়ির ছাদেও বিভিন্ন পাত্রে বা আধারে জমা জলে ডেঙ্গি মশার লার্ভা পাওয়া যাচ্ছে। তাই উচিত পুরসভা  সাফাই অভিযান জোরদার করুক, সেই সঙ্গে নির্মীয়মান আবাসনের উপর কড়া নজরদারি চালানো হোক। বাড়ানো হোক নাগরিক সচেতনতাও। ডেঙ্গিকে চেপে দিয়ে ডেঙ্গি মোকাবিলা করা যাবে না। সরকার বা মুখ্যমন্ত্রী যত তাড়াতাড়ি তা বুঝবেন রাজ্যবাসীর পক্ষে ততই মঙ্গল।