ডেঙ্গুতে সরকারি ব্যর্থতার প্রতিবাদে পথে বিজেপি,প্রশ্ন এত দেরিতে কেন?

0
22

গত কয়েক মাস ধরে রাজ্যজুড়ে ডেঙ্গুর প্রকোপ মারাত্মক আকার নিয়েছে।রাজ্য সরকার সমস্যাকে স্বীকার না করে ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করায় সমস্যা আর জটিল হয়েছে।ইতিমধ্যেই এই রোগের প্রকোপে রাজ্যে কয়েকশো মানুষের মৃত্যু হয়েছে বলে বেসরকারি সূত্রে খবর।রাজ্য সরকারের স্বাস্থ্য বিভাগ ডেঙ্গু প্রতিরোধে পুরোপুরি ব্যর্থ ও রাজ্য সরকার ডেঙ্গুতে মানুষের মৃত্যুর তথ্য গোপন করতে রাজ্য স্বাস্থ্য বিভাগে অলিখিত জরুরি অবস্থা জারি করেছে এই অভিযোগ তুলে রাজ্য বিজেপির সমর্থক ও কর্মীরা সোমবার স্বাস্থ্য ভবন অভিযান করেন।মাঝপথে তাদের মিছিল আটতে দেয় পুলিশ।এরপর পুলিশের সঙ্গে বিজেপি কর্মীদের তুমুল ধস্তাধস্তি শুরু হয়ে যায়।পুলিশির ব্যারিকেড ভেঙে বিজেেপি কর্মীরা স্বাস্থ্য ভবনের সামনে এগিয়ে যান।এই সময় পুলিশ বিজেপি কর্মীদের উপর নির্বিচার লাঠি চার্জ করে বলে বিজেপি কর্মীদের অভিযোগ।প্রবল উত্তেজনাকর পরিস্থিতির মধ্যেই বিজেপি কর্মী সমর্থকরা স্বাস্থ্য ভবনের গেটের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করেন।গোটা রাজ্য জুড়েই ডেঙ্গুতে সরকারি ব্যর্থতার প্রতিবাদে আন্দোলন শুরু করা হবে বলে বিজেপির রাজ্য নেতাদের পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হয়।

তবে বিজেপির এদিনের প্রতিবাদ আন্দোলনের পর স্বাভাবিক ভাবেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে রাজ্যে এই রোগের প্রকোপ শুরু হয়েছে কয়েকমাস হয়ে গেল,এতদিন সময় লাগলো বিরোধীদের পথে নামতে?কেন বিরোধীরা বিষয়টাকে সামনে রেখে জোরদার গণআন্দোলন গড়ে তুলে সরকারকে চাপে ফেলতে পারলো না?বিরোধী দলগুলো মানুষের সমস্যাকে তুলে ধরে পথে নামতে পারলে সরকার যাবতীয় বিষয়ে হয়তো এতো গাছাড়া ভাব দেখাতে পারতো না।আসলে সবাই ভোটের অংক কষে মানুষের পাশে দাঁড়াবার কথা ভাবে,যতোদিন সেই অংকটা পরিষ্কার বোঝা না যায় ততদিন সব দল চুপ থাকে।এতগলো মানুষের মৃত্যু,তারপরেও ডেঙ্গু যে ভাবে ছড়িয়ে পরছে তাতে বিজেপির রাজ্য নেতারা হয়তো এতদিনে বুঝলেন বিষয়টা নিয়ে পথে নামলে ভোটের ফায়দা আসলেও আসতে পারে তাই এতদিন পরে গা ঝারা দিয়ে পথে নামলেন তারা।