পরীক্ষা নয় যুদ্ধে জয়ী হতে চায় ভাঙড়ের কিশোরদল

সামনে ওদের মাধ্যমিক পরীক্ষা,তাই বইতে চোখ রাখেতে হচ্ছেই,তবে পড়ার ফাঁকে ফাঁকে জোর কদমে চলছে যুদ্ধ জেতার প্রস্তুতিও।হাঁ ভাঙড়ের পাওয়ার গ্রিড বিরোধী লড়াই ওদের কাছে যুদ্ধই,এই যুদ্ধে জয়ী হওয়াটা ওদের কাছে পরীক্ষায় পাশ করার চেয়েও জরুরী,যে কোন মূল্যে ওরা এই যুদ্ধে জিততে চায়।কতোই বা বয়স ওদের কারোর ১৪,কারোর ১৬ বা ১৭ তবু এরই মধ্যে ওরা বুঝে গেছে গোলা বারুদের মাহাত্ম্য।ওরা মানে কামরুদ্দিন,সাকিল,মনিরুল,সজল,পঞ্চুরা,ওরা ভাঙড়ের কিশোর,এ বছর মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী।নিয়মিত স্কুলে যেতে পারে নি কেউ,তবু পরীক্ষা দেওয়ার প্রস্তুতি চলছে।তবে ভাঙড়ে ওরা চায় ওদের লড়িটা যেন জেতে,অনেকের কাজ থেকে জোর করে জমি নেওয়া হয়েছে,টাকা চাইলে হুমকি দেওয়া হচ্ছে।কিন্তু আরাবুলরা যে বলছে সবাই কে ক্ষতিপুরণ দেওয়া হয়ে গেছে আবার দেওয়া হবে,প্রশ্ন শুনে তাচ্ছিল্য ভরা গলায় সাকিল জানায়,মিথ্যা সব মিথ্যা ওরা প্রতিদিন ভয় দেখাচ্ছে,বোমা মারছে আলো কেটে দেওয়ার হুমকি দিচ্ছে,প্রশাসন আর গুন্ডা একসঙ্গে আক্রমণ করছে।পড়ার সময় আরাবুল আর কাইজারের লোকেরা মাঝেমধ্যেই বোমা বাজি করে আমরা এলাকার কিশোরদল তখন ওই ভেড়ির কোণায় গিয়ে লুকিয়ে থাকি,বোমাবাজি থামলে বাড়ি ফিরে আসি।বাড়ির বড়রা গা ঢাকা দিচ্ছে কারণ যে কোন দিন তাদের গ্রেপ্তার করা হতে পারে।পাওয়ার গ্রিডের পক্ষে যতোই প্রচার হোক এলাকার মানুষ জানেন প্রতিদিন কেমন যন্ত্রণায়  দিন কাঁটছে তাদের।এলাকার কিশোরদল সেই যন্ত্রণার অংশি হতে চায়,তাই তারা যুদ্ধ করার জন্য তৈরি হচ্ছে,খেলা,পড়া কেরিয়ার নয় ভাঙড়ের কিশোর এখন শপথ নিচ্ছে অধিকার ছিনিয়ে নেওয়ার,ভাঙড়ের কিশোর মন এখন দুর্বলতা,সরলতাকে পরিহার করে নিজেদের বাস্তুভিটা,নিজেদের চাষের জমি বাঁচানোর সংগ্রাম করতে বদ্ধপরিকর।ভাঙড়ের কিশোর মনে রাজ্য সরকারের প্রতি তীব্র ঘৃণা তৈরি হয়েছে,জোর করে পাওয়ার গ্রিড তৈরি করতে গেলে সেই ঘৃণা আগুন হয়ে উঠবে না তো?ভয়াবহ রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা ব্যবহার করে জমি হয়তো নেওয়া যাবে কিন্তু ভাঙড়ের যে কিশোরদল আজ রাষ্ট্রবিরোধী ঘৃণাকে হৃদয়ে বহন করছে সেই হৃদয় থেকে ঘৃণা দুর করবে কে?আগামীদিনে সেই ঘৃণা কোন জঙ্গিপনার বীজ বহন করলে তার দায় কার?এই প্রশ্ন গুলো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতো ক্ষমতার কারবারী রাজনীতিকদের কোনদিন ভাবিত করবে না তা বলাই বাহুল্য,তবু প্রশ্ন গুলো থাকবে,প্রশ্নগুলো আগুন হয়ে ধেয়ে আসতে চাইবে যে কোন সংবেদনশীল বিবেকবান মানুষজনদের দিকে।

,