অবস্থান বিক্ষোভে সরকারকে বার্তা সরকারি চিকিত্সকদের একাংশের

বারবার সরকারের কাছে আলোচনার দাবি জানিয়ে ফল না মেলায়,শেষ পর্যন্ত নিজেদের নিরাপত্তা ও সরকারি চিকিত্সা পরিষেবার উন্নয়নের দাবিতে শুক্রবার রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ মিছিল ও ২৪ ঘন্টার প্রতিকী অনশন করে সরকারকে বার্তা দিলেন সরকারি হাসপাতালের চিকিত্সকদের একাংশ।ওয়েষ্টবেঙ্গল ডক্টর্স ফোরাম সহ বেশ কয়েকটি ডাক্তার সংগঠনের পক্ষ থেকে,শুক্রবার সকাল ১০টায়  বিধান চন্দ্র রায়ের বাড়ির কাছে একত্রিত হয়ে অবস্থান বিক্ষোপ শুরু করা হয়,এরপর তাঁরা রাণিরাসমনি রোড পর্যন্ত মিছিল করে তাঁদের নিরাপত্তা ও রাজ্য সরকারি হাসপাতালগুলিতে আর উন্নত পরিষেবা দেবার জন্য সরকারের কাছে দাবি জানান।মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে তাঁকে স্মারকলিপি দেওয়ার সিদ্ধান্তও রাখা থাকলেও এদিন প্রতিবাদী চিকিত্সকদের মধ্যে বেশ কয়েকজন বিধানসভাতে গিয়ে রাজ্য মন্ত্রী সভার কোন একজনের সঙ্গে কথা বলবেন বলে স্থির হয়েছে।প্রতিবাদী ডাক্তার সংগঠনগুলির পক্ষ থেকে আগেই জানানো হয়েছিল যে ভাবে সরকারি হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরিষেবার যে খামতির জন্য ডাক্তারদের দায়ী করে তাঁদের উপর জুলুমবাজি নামিয়ে আনা হচ্ছে তাতে ব্যতিব্যস্ত হয়ে সরকারি হাসপাতালে চাকরী করার মানসিকতা হারিয়ে ফেলছেন অনেক চিকিত্সক,তাঁরা ইস্তফার ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন।সে বিষয়েও সরকারকে অবগত করা হয়েছিল,কিন্তু তবুও সরকার আলোচনায় বসার আগ্রহ না দেখিয়ে,পদত্যাগ করতে ইচ্ছুক ডাক্তারদের তালিকা জেলা স্বাস্থ্য আধিকারিকদের কাছে পাঠিয়ে দিতে বলায় সরকারের অনমনীয় ভাবমূর্তি প্রকাশ পেয়েছে ধরে নিয়ে রাস্তায় নেমে আন্দোলনের দিকে যাচ্ছেন প্রতিবাদী চিকিত্সকরা।তবে এদিনও প্রতিবাদী চিকিত্সক সংগঠনগুলির পক্ষ থেকে দাবি করা হয় তারা কোন ভাবেই সরকারকে তাঁদের প্রতিপক্ষ মনে করছেন না,তাঁরা চান সরকার তাঁদের কথা শুনুক,যাতে রাজ্যের স্বাস্থ্য পরিষেবার উন্নতি হয়,সাধারণ মানুষ উপকৃত হয়,ও চিকিত্সকদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করা যায়।তবে সরকার আলোচনায় না বসলে শুক্রবারের পর তাঁরা যে আর বড় আন্দোলনের প্রস্তুতি নেবেন তা জানাতে ভুলছেন না প্রতিবাদী চিকিত্সকদের সংগঠনগুলি।

,