বিজ্ঞাপন দিয়েেও সরকারি হাসপাতালের জন্য মিলছে না ডাক্তার

রাজ্যজুড়ে যখন চাকরীর বাজারের ভয়াবহ দুরাবস্থা,কয়েক হাজার সরকারি পিওন নেবার বিজ্ঞাপন দেওয়া হলে যখন কয়েক কোটি আবেদন জমা পড়ে যায়,সেই আবেদনে যখন দেখা যায় গবেষনা রত পিএইচডি ডিগ্রি ধারীদেরও তখন কর্মক্ষেত্রের করুণ অবস্থাটা বুঝতে কারোর অসুবিধা হয় না।তবে এই ভয়াবহ চিত্রের একেবারে উল্টো প্রতিচ্ছবি ধরা পড়ল,সরকারি হাসপাতালে ডাক্তার নিয়োগ নিয়ে বিজ্ঞাপন দেওয়ার পর।১৫২০টি শূন্যপদের জন্য জেনারেল ডিউটি মেডিকেল অফিসার বা জিডিএমও চেয়ে বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়েছিল,রাজ্য হেলথ্ রিক্রুটমেন্ট বোর্ডের পক্ষ থেকে।আবেদন জমা পড়েছে হাজারেরও কম।যা নিয়ে অস্বস্তিতে পড়েছেন রাজ্যের স্বাস্থ্য কর্তারা।বেশ কিছুদিন ধরেই প্রশাসনিক দমনপীড়ন ও রাজনৈতিক প্রতিহিংসার অভিযোগে সরব হয়েছেন সরকারি চিকিত্সকদের একাংশ,এর ফলে সরকারি চাকরিতে আগ্রহ হারাচ্ছেন অনেক চিকিত্সক,তারই প্রতিফলন সরকারি বিজ্ঞাপনে সাড়া না পাওয়া বলে মনে করছেন প্রতিবাদী সরকারি চিকিত্সকদের কেউ কেউ।ওয়েষ্ট বেঙ্গল ডক্টর্স ফোরামের পক্ষ থেকে সভাপতি রেজাউল করিম জানান,অন্যায় বদলি ও প্রশাসনিক দমনপীড়ন না কমলে এমন ঘটনা বাড়তেই থাকবে।রাজ্যের হেলথ্ রিক্রুটমেন্ট বোর্ডের থেকে জানা যাচ্ছে ১৫২০ জনের প্রযোজন থাকলেও আপাতাত ৯০০ জনকে নিয়োগপত্র দেওয়া হয়েছে।তবে সূত্রের খবর এই ৯০০ জনের মধ্যেও অনেকে কাজে যোগ দিতে শেষ মূহুর্তে অনিচ্ছা প্রকাশ করছেন।সবমিলিয়ে রাজ্যের সরকারি স্বাস্থ্য পরিষেবার হাল যে খুব সুখকর নয় তা বলাই বাহুল্য।

,