আজ পঞ্চায়েত মামলার রায়

শুক্রবার পঞ্চায়েত মামলার রায় দেবে সিঙ্গল বেঞ্চ। সোমবার সিঙ্গল বেঞ্চে মামলা ফেরত পাঠায় ডিভিশন বেঞ্চ। মঙ্গলবার থেকে সিঙ্গল বেঞ্চে শুনানি হয়। বৃহষ্পতিবার শুানানি শেষ হয়।

এর আগে ১২ এপ্রিল পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রক্রিয়াতে ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত স্থগিতাদেশ দেয় কলকাতা হাইকোর্ট। পঞ্চায়েত নির্বাচন সংক্রান্ত সমস্ত তথ্য আগামী ১৬ এপ্রিলের মধ্যে রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে হলফনামা দিয়ে জানাতে নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। সেই সঙ্গে হাইকোর্ট ও সুপ্রিমকোর্টে একই সঙ্গে মামলা করায় ও সেই তথ্য আদালতকে না জানানোয় বিজেপিকে ৫ লক্ষ টাকা জরিমানা করেছে হাইকোর্ট। সিঙ্গল বেঞ্চের এই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ডিভিশন বেঞ্চের দ্বারস্থ হয় তৃণমূল কংগ্রেস। ফের সিঙ্গল বেঞ্চেই মামলা পাঠাল হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ।

এর আগে পঞ্চয়াতে ভোটের মনোনয়নে হিংসার জেরে অনেক জায়গায় মনোনয়ন পেশ করতে পারেনি বিরোধীরা। এর প্রেক্ষিতে প্রথমে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় বিজেপি। সেই প্রেক্ষিতে নির্বাচন কমিশনকে মনোনয়ন পেশ করার বিষয় নিশ্চিত করতে বলে সর্বোচ্চ আদালত। এর পরই ৯ এপ্রিল( মনোনয়ন পেশের শেষ দিন) রাতে রাজ্য নির্বাচন কমিশন মনোনয়ন পেশের সময় ১দিন বাড়ানোর বিজ্ঞপ্তি জারি করে। ৯ এপ্রিল রাতে জারি করা বিজ্ঞপ্তি ১০ এপ্রিল সকালে বতিল করে কমিশন নিজেই। তার বিরোধিতা করে ফের হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয় বিজেপি।  ৯ তারিখের বিজ্ঞপ্তি প্রত্যাহারের কমিশনের ১০ তারিখের নয়া সিদ্ধান্তের উপর অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশ দেয় হাইকোর্ট। আর ১১ এপ্রিল ফের সুপ্রিমকোর্টের দ্বারস্থ হয় বিজেপি ও সিপিএম। সেখানে সুবিধা করতে পারেনি বিরোধীরা। মামলা হাইকোর্টেই ফেরত পাঠায় সুপ্রিম কোর্ট।