ডোকলাম উঠল না মোদি-শির ঘরোয়া বৈঠকে?

ডোকলাম নিয়ে অচালাবস্থার পর ঘরোয়া বৈঠকে মিলিত হলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও চিনা প্রেসিডেন্ট  শি চিনফিং। দুদেশের শীর্ষ নেতারা কূটনৈতিক বৈঠক না করে হঠাত্ ঘরোয়া বৈঠকে করতে গেলেন কেন তা স্পষ্ট নয়।  মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী শুক্রবারের মোদি -শি র একান্ত বৈঠকে দোভাষীরা ছাড়া অন্য কেউ উপস্থিত ছিলেন না। পরে অবশ্য দুদেশের প্রতিনিধি দলের মধ্যে বৈঠক হয়েছে। চিনা প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বৈঠকের পর মোদি বলেন এই ধরনের বৈঠক প্রতি বছর হওয়া উচিত। আগামী বছর চিনা প্রেসিডেন্টকে নিজের দেশে স্বাগত জানাতে পারলে তার ভাল লাগবে।  মোদি ও শি দুজনেই  দুদেশের একজোটে কাজ করার কথা বলেন। দুই নেতা মিউজিয়াম ঘুরে দেখেন।

 মোদির মেড ইন ইন্ডিয়ার শ্লোগানকে ব্যর্থ করে চিনা পণ্যে দেশ ছেয়ে গেছে। তাই এদেশের বাজারের উপর চিনের টান থাকা স্বাভাবিক। কিন্তু ভারতের?  ডোকলাম ইস্যুতে সুর চড়ানো সত্ত্বেও  মোদি -শি বৈঠক কেন? পাকিস্তানের সঙ্গে চিনের ক্রমবর্ধমান সুসম্পর্কই চিনের সঙ্গে সুসম্পর্ক তৈরি করতে ভারতকে বাধ্য করছে?