১০০০ গুন বেশি দামে পিরামলকে শেয়ার বিক্রি করে বিতর্কে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূষ গোয়েল

কেন্দ্রীয় রেল ও বিদ্যুত্ মন্ত্রী পীযূষ গোয়েলের ইস্তফা দাবি করল কংগ্রেস। সম্প্রতি দ্য ওয়ার ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক রিপোর্টে অভিযোগ করা হয়েছে কেন্দ্রে মন্ত্রী হওয়ার পর পীযূষ গোয়েল ও তাঁর স্ত্রী নিজেদের মালিকানাধীন একটি কোম্পানির শেয়ার প্রায় ১০০০ শতাংশ বেশি দামে( বুক ভ্যালুর তুলনায়) পিরামল গোষ্ঠীকে বিক্রি করেছে। যদিও বিজেপির তরফে দাবি করা হয়েছে ২০১৪ সালের জুলাই মাসে পীযূষ তার কোম্পানির শেয়ার বিক্রি করে দিয়েছিলেন। দ্য ওয়ারের রিপোর্ট অনুযায়ী  মন্ত্রী হওয়ার ৪ মাস পর ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বর শেয়ার বিক্রি করেছেন পীযূষ। একই অভিযোগ ক করেছে কংগ্রেসও।  এই শেয়ার বিক্রি করা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে কারণ যে পিরামল গোষ্ঠীর বাণিজ্যিক স্বার্থের সঙ্গে   পীযূষ গোয়েল দফতরের পরিধি মিলে যায় বলেই। কয়লা ও বিদ্যুত্ দফতরের  মন্ত্রী থাকাকালীন পিরামলকে শেয়ার বিক্রি করেছিলেন পীযূষ গোয়েল আর বিদ্যুত্ ও শক্তি পুনর্নবীকরণ শিল্পে কাজ করে পিরামল গোষ্ঠী। পিরামল গোষ্ঠী অবশ্য ওয়ারে প্রকাশিত রিপোর্টকে সত্য থেকে অনেক দূরে বলে ব্যাখ্যা করেছে। তাদের দাবি একজন নিরপেক্ষ চার্টাড অ্যাকাউন্টেন্টের মূলায়নের ভিত্তিতেই পীযূষ ও তার স্ত্রীর শেয়ার দাম নির্দিষ্ট করা হয়েছিল। আর তা মেটান হয় ২০১৪ সালের জুলাই মাসে, সেপ্টেম্বরে নয়। তাছাড়া মন্ত্রী পীযূষ গোয়েলের বিভাগের সঙ্গে পিরামল গোষ্ঠীর কোন লেনাদেনা নেই বলে দাবি করেছে তারা। মানহানির মামলার হুমকিও দিয়েছে তারা।

এখানেই শেষ নয় দ্য ওয়ারের রিপোর্ট অনুযায়ী স্রিডি ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে পীযূষ গোয়েলের সম্পর্ক নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। ২০১৩ সাল পর্যন্ত যে কোম্পানির সঙ্গে পীযূষ যুক্ত ছিলেন সেই কোম্পানি ২০১৪ সালে এসে ব্যাঙ্কের প্রায় ৬৫০ কোটি টাকা ঋণ খেলাপি করে।যদিও গোয়েল দাবি করেছেন ওই কোম্পানির সঙ্গে তার সম্পর্ক ৮ বছর আগে চুকে গেছে। পীযূষ গোয়েল যাই বলুন না কেন এদেশে সরকার আর করপোরেটদের মাখামাখি নতুন নয়। দ্য ওয়ারের রিপোর্ট  আবারো তাই তুলে ধরলো।

ছবি উইকিপিডিয়ার সৌজন্যে

,