গড়চিরোলিতে ভুয়ো সংঘর্ষই,রিপোর্ট মানবাধিকার সংগঠনের তথ্যানুসন্ধান টিমের

0
16

দুদিন ধরে গড়চিরোলিতে যে ভাবে প্রায় ৩৯ জনকে হত্যা করা হয়েছিল.তা যে মাওবাদীদের সঙ্গে গড়চিরোলির সি ৬০ কাম্যান্ডো বাহিনীর কোন সংঘর্ষের ঘটনা ছিল না,তা সামনে নিয়ে এল একাধিক মানবাধিকার সংগঠন ও মহিলা নির্যাতন প্রতিরোধক সংগঠনের তথ্যানুসন্ধান টিম।।ঘটনা ঘটে যাওয়ার পর এই সব সংগঠনের প্রতিনিধিরা কয়েকদিন ধরে ঐ এলাকা ঘুরে বিভিন্ন জনের সঙ্গে কথা বলে,পুলিশ আধিকারিকদের বয়ান নিয়ে নিশ্চিত গড়চিরোলিতে কোন সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে নি।বিশেষ কাম্যান্ডো বাহিনী ঠান্ডা মাথায় অতজন মানুষকে নির্মমভাবে খুন করেছে বলে অভিযোগ তুলেছেন দেশের একাধিক মানবাধিকার ও সমাজ আন্দোলনের কর্মীরা।দি ইম্ডিয়ান এক্সপ্রেসে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুসারে সোমবার ঘটনাস্থল থেকে ফিরে ঐ তথ্যানুসন্ধান টিমের প্রতিনিধিরা একটি প্রেস কনফারেন্স করেন।সেখানে তাঁরা যাবতীয় তথ্য তুলে ধরে দাবি করেন যে আটজন গ্রামবাসী নিখোঁজ ছিল তাদের বিষয়ে পুলিশ আধিকারিকরা নানা সময়ে নানা তথ্য দিয়েছেন।পুলিশ যে খানে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি করেছিল আসল ঘটনা ঘটে তা থেকে অনেক দূরে এক জঙ্গলের মধ্যে।গ্রামবাসীদের সঙ্গে কথা বলে এই প্রতিনিধি দলের আশঙ্কা বেশ কেছু নিরিহ গ্রামবাসীকে পুলিশের নির্মমতায় প্রাণ হারাতে হয়েছে।গোটা ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবি তুলে অবিলম্বে দোষী খুনি পুলিশদের শাস্তির দাবিতে সরব হয়েছেম মানবাধিকার আন্দোলন ও সমাজ আন্দোলনের কর্মীরা।মানবাধিকার আন্দোলনের কর্মীদের এই তথ্যানুসন্ধান রিপোর্ট নিয়ে জাতীয় স্তরেও আলোড়ন শুরু হয়েছে।