ডাক্তার রাতুলকে আটকে রাখতে আরো মামলা পুলিশের

0
11

প্রায় মাস খানেক আগে তরুণ চিকিত্সক রাতুল বন্দ্যেপাধ্যায়কে মাঝ রাতে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে গ্রেপ্তার করেছিল রাজ্য পুলিশ।রাতুল গণআন্দোলনের সমর্থক ও গণস্বাস্থ্যের দাবিতে বার বার সোচ্চার হয়েছেন,অভিযোগ সেই কারণেই সরকারের রোষে পড়েন তিনি।তাঁর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহীতা সহ একাধিক অভিযোগ দায়ের করা হয়।মঙ্গলবার সেই সব অভিযোগের প্রায় সবকটিতেই জামিন পেয়ে যান রাতুল।তবে রাজ্যের পুলিশ প্রশাসন রাতুলকে জেলে আটকে রাখতে এতটাই মরিয়া যে একাধিক মামলায় জামিন মেলার সঙ্গে সঙ্গেই তাঁর বিরুদ্ধে তড়িঘড়ি আর নতুন আট আটটি মামলা চাপিয়ে দেওয়া হয়।মঙ্গলবারই অবশ্য সেই নতুন মামলার একটিতে জামিন মিলে যায় রাতুলের।পরের সাতটি মামলার শুনানি আগামি ১৯ তারিখে।যে ভাবে একজন গণআল্দোলনের কর্মী ও চিগিত্সককে হেনস্তা করতে পুলিশ প্রশাসন সক্রিয় হয়ে উঠেছে তাতে অনেকেরই ধারনা রাজ্য ও দেশ জুড়ে ভয়াবহ এক স্বৈরাচারি এবং ফ্যাসিবাদী শাসনের পদধ্বণি ক্রমশ স্পষ্ট হচ্ছে।