নদিয়ার গ্রাম পঞ্চায়েতে বিজেপি-সিপিএম আঁতাত

0
13

সোমবার প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী অভিযোগ করেছিলেন যে এ রাজ্যে বিজেপিকে জায়গা করে দিতে তৃণমূল ও বিজেপির গোপন বোঝাপড়া হয়েছে।অধীর বাবুর দাবি ছিল সেই কারমেই কংগ্রেস ও সিপিএম ভাঙার জন্য শাসক দল এতটা মরিয়া হয়ে উঠেছে।অধীরবাবুর এই অভিযোগের ২৪ ঘন্টা না কাটতেই অন্য এক তথ্য সামনে চলে এল।নদিয়ার এক গ্রাম পঞ্চায়েতে সিপিএম ও বিজেপি বোঝাপড়া করে ভোটে প্রার্থী দিয়েছে বলে খবর।ওয়েব নিউজ স্ক্রলের রিপোর্ট উত্তর নদিয়ায় গ্রাম পঞ্চায়েতে এবার বিজেপি ও সিপিএম বোঝাপড়া করে নির্বাচনে প্রর্থী দিয়েছে।যদিও এই রিপোর্টেই বলা হয়েছে সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সিতারাম ইয়েচুরি পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন কোন ভাবেই তাঁরা বিজেপির সঙ্গে সমজোতায় যাবে না।তবে বিজেপির নদিয়া জেলার স্থানীয় নেতা ও সিপিএমের উত্তর নদিয়ার সম্পাদক ও রাজ্য কমিটির সদস্য সুমিত দে জানিয়েছেন স্থানীয় স্তরে শাসক দল যে রকম সন্ত্রাস নামিয়ে এনেছে তা প্রতিহত করতে তৃণমূল স্তরে যদি কেউ জোট বাঁধে তা দলের কোন সিদ্ধান্ত নয় বলেই ধরতে হবে।গ্রাম স্তরে শাসকের গুন্ডামি থেকে বাঁচতে সেটা এলাকার মনুষের নিজেদের প্রয়াস বলেই তাঁরা মনে করছেন,এর সঙ্গে দলের কোন সম্পর্ক নেই।একই বক্তব্য নদিয়ার বিজেপি নেতা মাধব সরকারের তাঁর ও বক্তব্য দল নয় স্থানীয় স্তরে মানুষ শাসকের বিরুদ্ধে জোট বাঁধতে চাইছে।তবে মাধববাবু মেনে নেন যে গ্রাম পঞ্চায়েতে তাঁরা এবার যে নির্দল প্রার্থীদের সমর্থনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তাঁরা কিছুদিন আগে পর্যন্ত সিপিএম কর্মীই ছিলেন।সবমিলিয়ে নদিয়ার এই এলাকায় এক অন্য জোটের গন্ধ পাচ্ছেন কেউ কেউ।