সাপের কামড়ে যুবকের মৃত্যুর খবরটা আসলে ঠিক কী?

বিষধর সাপের কামড়ে মৃত্যু হল এক যুবকের,কোচবিহারের হলদিবাড়ির কাছে শুক্রবার অনিল রায় নামে এক যুবককে গোখড়ো ছোবল দেয়।স্থানীয়দের বক্তব্য সাপ নিয়ে খেলা করা ঐ যুবকের নেশা ছিন,এদিন রাস্তা থেকে বিষধর গোখড়ে ধরে নানা কায়দা দেখাতে গিয়ে সাপের ছোবল খায় ঐ যুবক।স্থানীয় স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে গেলে সেখানে বিষের প্রতিষেধক না থাকায় তাকে রেফার করা হয় জেেলা সদর হাসপাতালে,কিন্তু নিয়ে যেতে যেতেই রাস্থায় মৃত্যু হয় ঐ যুবকের।কেন স্থানীয় স্বাস্থ্য কেন্দ্রে সাপের বিষের প্রতিষেধক ছিল না তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।বর্তমান সরকারের আমলে স্বাস্থ্য পরিষেবার প্রভুত উন্নতি হয়েছে বলে যারা মনে করেন,যারা মনে করেন শহরের কিছু হাসপাতালের পরিচ্ছন্নতা,আর কম দামের অষুধের দোকান খুলে দিয়ে স্বাস্থ্য পরিষেবায় বিপ্লব ঘটিয়ে দিয়েছে বর্তমান সরকার,তাঁরা সাপের কামড়ে স্থানীয় স্বাস্থ্য কেন্দ্রে বিষের প্রতিষেধক না পেয়ে এক তরতাজা তরুণের বেঘোরে প্রাণ হারানোর এই ঘটনার পর নিশ্চয়ই অনুধাবন করতে পারবেন,স্বাস্থ্য পরিষেবায় কিছুটা উন্নতি হলেও প্রয়োজনের তুলনায় তা এখনও অনেকটা পেছিয়ে।এখনও অনেকটা পথ যাওয়া বাকি,সেই পথে সরকার আদৌ যেতে চাইবে কীনা তা নিয়েও বিস্তর সংশয় থাকছেই। আর মিডিয়া, পুরো খবরটাই সম্পূর্ণ উল্টোভাবে দেখানোর চেষ্টা করল। সরকারি ব্যর্থতা আড়াল করতে নাকি খবর না বোঝার কারণে?

,