নিরাপত্তা রক্ষীরাই নিরাপত্তা চাইছেন

রাজ্যে পঞ্চায়েত ভোটের জন্য নিরাপত্তা নিয়ে যখন ঘোর বিতর্ক,যখন সেই বিতর্কের মিমাংসায় নজরদারি করতে হয়েছে আদালতকে।ঠিক সেই সময় ভোটের ঠিক ২৪ ঘন্টা আগে জলপাইগুড়ি জেলায় বুথের বাইরে পাহাড়া রত পুলিশ কর্মীদের বক্তব্য শুনলে ভিমরি খেতে পারেন যে কেউই।রবিবার সকালে একটি টিভি চ্যানেলের পর্দায় বার বার দেখান হয় সেই পুলিশ কর্মীদের বক্তব্য,কেউ হাতে লাঠি,কেউ কাধেঁ বন্দুকধারি।তাঁদের যখন জিজ্ঞাসা করা হয়, ভোটারদের নিরাপত্তা দিতে তাঁরা প্রস্তুত কি না? যে কোন সমস্যা সামাল দিতে তাঁরা তৈরি আছেন কি না?নিরাপত্তা নিয়ে তাঁরা কোন সংশয় ভুগছেন কি না? তার উত্তরে সেই সব পুলিশ কর্মীরা পরিষ্কার জানিয়ে দেন তাঁরা নিজেদের নিরাপত্তা নিয়েই যথেষ্ট নিন্তিত।স্বাভাবিকভাবেই এর পর প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে যে নিরাপত্তা রক্ষীরাই নিরাপত্তার অভাবে ভুগছেন তাঁরা আবার কিসের নিরাপত্তা দেবেন!!প্রসঙ্গত জলপাইগুড়ির বেশ কিছু এলাকায় বিজেপি বেশ শক্তিশালী তাই শাসক দলকে টক্কর দিতে তারাও তৈরি।আর সেই কারণেই গন্ডোগোলের আশঙ্কায় স্বয়ং নিরাপত্তা রক্ষীরাই নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছেন।সাধারণ মানুষের অবস্থা সহজেই অনুমান করা যায় বোধহয়।শিবঠাকুরের আপন দেশে গণতন্ত্র ও নিরাপত্তা সবকিছুই যে সর্বনেশে হবে তাতে আর আশ্চর্য কী।

,