কর্ণাটকের কুর্সি দখলের নাটক গভীর রাতে গড়াল সুপ্রিম কোর্টে, শপথগ্রহণে স্থগিতাদেশ দিল না অাদালত

কর্ণাটকের কুর্সি দখলের নাটক মধ্যরাতে গড়াল সুপ্রিম কোর্টে। রাত দেড়টা থেকে ভোর সাড়ে ৫টা পর্যন্ত শুনানির পর ইয়েদুরাপ্পার শপথ গ্রহণে স্থগিতাদেশ দিল না সুপ্রিম কোর্টের ৩ সদস্যের বেঞ্চ। ইয়েদুরাপ্পাকে মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ গ্রহণের জন্য  রাজ্যপালের অামন্ত্রণের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে বুধবার রাতেই সর্বোচ্চ অাদালতের দরজায় কড়া নাড়ে কংগ্রেস। গভীর রাত পর্যন্ত চলা শুনানিতে সুপ্রিম ক‍োর্ট জানিয়েছে ইয়েদুরাপ্পা রাজ্যপালকে বিধায়কের সমর্থনের বিষয় যে চিঠি দিয়েছেন তা তারা দেখতে চান। শপথগ্রহণে স্থগিতাদেশ না দিলেও পুরো বিষয়টি অাদালতের  বিচারাধীন  হয়ে রইল বলে জানিয়েছে বেঞ্চ। এত গুরুত্বপূর্ণ মামলার শুনানিতে গঠিত বেঞ্চে নেই সুপ্রিম কোর্টের প্রথম ৪জন বিচারপতির কেউই( যারা বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মামলায় বেঞ্চ ঠিক করার প্রধান বিচারপতির সিদ্ধান্তে সরব হয়েছিলেন)  অাইনজীবীদের একাংশের মতে রাজ্যপালের সিদ্ধান্তের উপর সাধারণত সুপ্রিম কোর্ট স্থগিতাদেশ দেয় না। তবে এক্ষেত্রে সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণের জন্য ইয়েদুরাপ্পাকে দেওয়া রাজ্যপালের ১৫ দিনের সময়সীমা হয়ত‍ো কমিয়ে দেবে অাদালত। এই মামলার পরবর্তী শুনানি শুক্রবার। এই মামলা সুপ্রিম কোর্ট কী রায় দেয় তার দিকে নজর থাকবে গোট দেশের। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের একাংশের মতে বর্তমানে সুপ্রিম কোর্টের বিশ্বাসযোগ্যতা তলানিতে এসে ঠেকেছে। তারা  মনে করেন এটা সেই সময় যখন ‘সরকারের চাপের’ ঊর্ধ্বে উঠে জনমানসে নিজেদের গ্রহণযোগ্যতাকে তুলে ধরতে পারে সর্বোচ্চ অাদালত।