তৃণমূলের বিরুদ্ধে গলা চড়ালেও নারদা সারদায় নীরব অমিত শাহ

রাজ্যে দুদিনের সফরে এসে বৃহস্পতিবার পুরুলিয়ায় বিজেপি কর্মী খুনের প্রতিবাদে জনসভা করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ।তৃণমূল সরকারকে সন্ত্রাসের সরকার বলে তাদের উপরে ফেলার হুমকি দিলেও সারদা নারদা নিয়ে কার্যত চুপই থাকলেন অমিত শাহ। নারদ ইস্যুতে অভিযুক্তদের মধ্যে অনেকেই সাংসদ হওয়া সত্ত্বেও কেন তা নিয়ে প্রিভিলেজ কমিটির বৈঠক হচ্ছে না সে নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। যদিও কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা কেন মাঝে মধ্যেই এই তদন্ত চালাতে চালাতেই শীত ঘুমে চলে যায়। সম্প্রতি অাবার তারা জেগে উঠেছে। চিটফান্ড ইস্যুতে অমিত শাহ নীরব থাকলেও এদিনও সারদা ও নারদা নিয়ে রাজ্যের শাসক দলকে হুশিয়ারি দিয়ে রাজ্য বিজেপির পক্ষে রাহুল সিনহা বলেন সবাইকে জেলে যেতে হবে।তার পরেও অবশ্য বক্তব্য রাখতে উঠে এ বিষয়ে মুখ খোলেন নি অমিত শাহ।রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের অনুমান নারদায় অভিযোগ আছে বর্তমান বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের বিরুদ্ধেও তাই বিষয়টি এড়িয়েই গেছেন দলের সভাপতি।তবে এদিন তিনি রাজ্যে পরিবর্তনের ডাক দিয়ে সকলকে ঝাপিয়ে পড়ার আহ্বান জানান।বাংলা দখনই যে তাদের পরবর্তী লক্ষ্য সে কথা সোচ্চারে ঘোষণা করেন বিজেপির সভাপতি।এ রাজ্যের জন্য মোদী সরকার কত টাকা বরাদ্দ করেছেন তারও হিসেব দেন অমিত শাহ।তবে বিজেপির দলীয় শৃঙ্খলা যে বেশ আলগা এদিনও তা পরিষ্কার হয়ে যায়।অমিত শাহের পুরুলিয়া সফর নিয়ে রীতিমতো বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির উদ্ভব হয়।কয়েকজন সাধারণ নাগরিকের বাড়িতে যাওয়ার কর্মসূচি থাকলেও অমিত শাহ বিশৃঙ্খলার জন্য তা বাতিল করতে বাধ্য হন।