১৫ বছরের মার্কিন কিশোরের পিএইচডি শুরু, একচান্সে এইমসে দরিদ্র পরিবারের অাশারাম, অাশ্চর্যের অাড়ালে ঢাকা পড়ে যায় সমাজের ব্যর্থতা

0
20

১৫ বছর বয়সের ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন কিশোর তানিশক অাব্রহাম। ক্যালিফাের্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং এ স্নাতক হবার পর পিএইচডি শুরু করতে চলেছে সে। বিষয় ক্যানসার। ইতিমধ্যেই তানিশক একটি যন্ত্র তৈরি করেছে যা দিয়ে পুড়ে যাওয়া রোগীর হৃদ কম্পণ মাপা যায়। ফলে মিডিয়ার শিরোনামে এখন তানিশক। অারেকজন যুবকও মিডিয়া থেকে প্রধানমন্ত্রী সবার চর্চায়। তার নাম অাশারাম।  কয়েক দিন অাগে  মধ্যপ্রদেশের এক পুরনো জিনিস কেনাবেচাকারীর সন্তান ২০ বছরের তরুণ অাশারাম প্রথম চেষ্টাতেই এইমসের প্রবেশিকা পরীক্ষায় সফল হয়েছেন। প্রথমজন সুযোগ থাকায় যোগ্যতাকে কাজে লাগিয়ে সফলতা পেয়েছে । দ্বিতীয় জন সমস্ত প্রতিকূলতাকে টপকে নিজেকে প্রমাণ করেছে। দুজনেই সফল। দুজনেই খবরের শিরোনামে। অাশারাম তো অাবার মোদির মনকি বাতে জায়গাও করে নিয়েছে। অথচ প্রতিদিনই হারিয়ে যায়  অাব্রাহম বা অাশারামের মত বহু প্রতিভা । তাদের খবর অামরা রাখি না। ব্যতিক্রম দিয়ে সমাজের খামতিকে ঢাকতে চাই অামরা, তা যায় না। তানিশক বা অাশারামদের  সফলতাকে এতটুকু ছোট না করেও বলা যায় অাসলে হাজার হাজার অাশারামদের অামাদের সমাজ প্রতিদিন হারাচ্ছে, তাদের হারানোর দায় ঝেড়ে ফেলতেই মোদির ভাষণে জায়গা করে নিচ্ছে অাশারামের সাফল্য। সংবাদ শিরোনামে উঠে অাসছে তানিশক।

ছবিতে বাঁদিকে অাশারাম, পাশে তানিশক