তেলের দাম বাড়ে কি এমনি এমনি ? মার্কিন চাপের মুখে ইরান থেকে তেল অামদানি কমালো ভারত

 ইরান থেকে জ্বালানি তেল অামদানি করতে ভারতকে নিষেধ করেছিল অামেরিকা। অাগামী নভেম্বর মাসের মধ্যে তেল অামদানি পুরোপুরি বন্ধ করতে হবে বলে কার্যত হঁশিয়ারি দেয় অামেরিকা। অার  তা না করলে ভারতের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করবে মার্কিন প্রশাসন। মুখে যাই বলুক মার্কিন হুঁশিয়ারকে যে ভারতের উপেক্ষা করতে পারছে না তার প্রমাণ ইতিমধ্যেই মিলতে শুরু করেছে। জুন মাসে ইরান থেক ২৫ শতাংশ কম জ্বালানি তেল অামদানি করেছে ভারত। মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী মে মাসে  ইরান থেকে প্রতিদিন গড়ে সাত লক্ষ সত্তর হাজার ব্যারেল তেল অামদানি করতো ভারত। জুন মাসে তা কমে প্রতিদিন সাড়ে ৫ লক্ষ ব্যারেল দাঁড়িয়েছে। ইরান জানিয়েছে তেল অামদানি বন্ধ করলে ভারতকে  ডলার পরিবর্তে টাকায়  তেলের দাম পরিশোধের যে সুযোগ তারা দেয় তা প্রত্যাহার করে নেবে।

সম্প্রতি ইরানের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে অামেরিকা। অার তাই সেই দাদাগিরি মানতে হবে ভারতকেও।  এর অাগেও মার্কিন চাপের জন্য ইরান থেকে ভারতে গ্যাস অানার পাইপ লাইন বসানোর বিষয়টি ঠান্ডা ঘরে পাঠিয়েছে ভারত।

,