৫০ হাজার কোটি টাকার পিএসিএল চিটফান্ড কেলেঙ্কারির তদন্তের কী হল?

চিটফান্ড তদন্তে মাঝে মধ্যেই ঘুম থেকে জেগে ওঠে সিবিআই। ফের ঘুম ভেঙেছে সিবিআইয়ের। বৃহষ্পতিবার পৈলান গোষ্ঠীর বিভিন্ন দফতরে হানা দেয় সিবিঅাই। জনগণের ৫০০ ক‍োটি টাকা অামানত লুঠ করে পৈলান কর্তা কি এতদিন নাকে তেল দিয়ে ঘুমোচ্ছিল?  সুপ্রিম কোর্ট চিটফান্ড তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিল ২০১৪ সালের মে মাসে। এখন ২০১৮ এর মাঝামাঝি। এতদিন পর এই সব তল্লাশির মানে কী? । তাছাড়া থেকে বড় চিটফান্ড পিএসিএলের বিরুদ্ধে তদন্তে কোন প্রভাবশালীকে গ্রেফতার করতে পারল না কেন সিবিঅাই ? আমানতকারীদের থেকে ৫০ হাজার কোটি টাকা তোলে পিএসিএল চিটফান্ড। তার মালিককে ২০১৬ সালে গ্রেফতার করা  হলে টাকা উদ্ধারের বিষয় কোন তথ্য এখনও তেমন একটা জানা যায়নি।  ৫০ হাজার কোটি টাকা চিটফান্ড কেলেঙ্কারি কি রাজনৈতিক নেতাদের অাশ্রয় ও প্রশ্রয় ছাড়া বছরের পর বছর ধরে চলতে পারতো? তদন্তে দীর্ঘসূত্রিতা কারণে হাতবদল হয়ে যাচ্ছে  এই সব চিটফান্ডের মালিকানাধীন সম্পত্তি। প্রশ্ন উঠছে তদন্ত তদন্ত খেলা আর কতদিন চলবে?

,