যশোহর রোডে গাছ কাটতে অনুমতি দিয়েও স্থগিতাদেশ হাইকোর্ট

0
5

যশোহর রোড জুড়ে একের পর গাছ কাটাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় মানুষজন ও পরিবেশ কর্মীদের সঙ্গে সরকারি আধিকারিকদের যে দ্বন্দ্ব শুরু হয়েছিল তার পরিপ্রেক্ষিতে কলকাতা হাইকোর্ট গাছ কাটার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে।কোর্টের নির্দেশ ছিল গাছ কাটার যৌক্তিকতা বোঝাতে হবে সরকারি আধিকারিকদের।গাছ কাটার বিরুদ্ধে হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেছিল পরিবেশ আন্দোলনকারীদের একাংশ।বেশ কয়েকমাস শুনানির পর শুক্রবার সেই মামলার রায় দিয়ে কলকাতা হাইকোর্ট জানায় ৩৫৬টি গাছ কাটা যাবে।তবে এর কিছু সময় পরেই আবার হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ বলে গাছ গুলি  প্রাচীন কিনা জানাতে হবে।।সব গাছই প্রাচীন জানার পর কোর্ট একটা গাছ কাটলে পাঁচটা গাছ লাগানোর নির্দেশ জারি করে।এর পর জনস্বার্থ মামলাকারীদের আইনজীবী আবেদন করেন সব গাছ কাটার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হোক,কারণ তারা বিষয়টি নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে যাবেন।এর পর আবার শুক্রবারই যাবতীয় গাছ কাটার উপর তিন সপ্তাহের স্থগিতাদেশ জারি করে কলকাতা হাইকোর্র্টের ডিভিশন বেঞ্চ।শুক্রবার এই রায় নিয়ে রীতিমত ধন্দ তৈরি হয় সব মহলে।প্রমমে ৩৫৬ টি গাছ কাটার অনুমতি দিয়েও পরে তা প্রত্যাহার করে নেওয়ায় সব পক্ষই অবাক হয়ে যান।তবে শেষ পর্যন্ত গাছ কাটা আপাতাত বন্ধ থাকায় খুশি পরিবেশ আন্দোলনের কর্মীরা।তবে সরকারি তরফে এর ফলে যশোহর রোড সম্প্রসারনের সরকারি কাজে জটিলতা তৈরি হোল বলে মনে করছেন।