হেমতাবাদে চিকিত্সককে বেধড়ক মারধর, সরকারি সম্পত্তি রক্ষায় বেশি চিন্তিত CMOH

চিকিত্সায় গাফিলতির অভিযোগ তুলে উত্তর দিনাজপুরের হেমতাবাদের প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ঢুকে চিকিত্সককে মারধর, স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভাঙচুর  চালালো রোগীর পরিবার । রায়গঞ্জে সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে ভর্তি অাক্রান্ত চিকিত্সক বিপুল ঘোষ। রাজ্যে চিকিত্সক নিগ্রহ রুটিনে পরিণত হয়েছে। রাজ্য সরকারের তরফে নিগ্রহ বন্ধের বিষয় শুধুই অাশ্বাস। কাজের কাজ কিছুই হয়নি। কলকাতা শহরের বুকে সরকারি হাসপাতালের চিকিত্সকরা নিগ্রহ হলে একটু হইচই হয়, সাময়িক কিছু ব্যবস্থার কথা বলা হয়। কিন্তু গ্রামাঞ্চল বা মফস্বলে হলে তাও হয় না। হেমতাবাদে চিকিত্সক নিগ্রহের পর জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য অাধিকারিক  প্রকাশ মৃধা মিডিয়াকে দেওয়া এক টেলিফোন সাক্ষাত্কারে যা জানিয়েছেন তা শুনলে মনে হবে অাক্রান্ত চিকিত্সকের পাশে দাঁড়ানোর থেকেও  সরকারি সম্পত্তি ধ্বংসের বিষয় তিনি বেশি চিন্তিত। এর পর থেকে সরকারি চিকিত্সকদের নিরাপত্তার বিষয়টি নিয়ে তিনি কী উদ্যোগ নেবেন তা বোঝা গেল না। একদিকে স্বাস্থ্যকেন্দ্র বা হাসপাতালগুলিতে উপযুক্ত পরিকাঠামোর তৈরিতে সরকার উদাসীনতা অন্যদিকে স্বাস্থ্য কর্মী ও চিকিত্সকদের নিরাপত্তার বিষয়  সরকারের নির্লিপ্ততা , এই দুয়ের কারণেই বারবার চিকিত্সকরা অাক্রান্ত হচ্ছেন বলে মনে করছেন চিকিত্সকদের একাংশ।