প্রয়াত করুণানিধি

ভারতীয় রাজনীতির প্রবীনতম ব্যক্তিত্ব তামিলনাড়ুর প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী করুণানিধি প্রয়াত হলেন মঙ্গলবার।এ দেশের রাজনীতিতে করুণানিধি যথার্থই এক বর্ণময় চরিত্র।দক্ষিণি সিনেমার চিত্রনাট্যকার হিসেবে একসময়  বিখ্যাত হয়ে ওঠা করুণানিধি পরবর্তী সময়ে ভারতীয় রাজনীতির নামী ব্যক্তিত্ব হয়ে ওঠেন।একাধিকবার তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী হওয়া ছাড়াও তিনি এক সময় কংগ্রেস দলের একাধিপত্যের বিরুদ্ধে গোটা দেশে বিভিন্ন আঞ্চলিক শক্তিকে সংহত করার প্রয়াসে প্রধান ভূমিকা নিয়েছিলেন।১৯৮৯ সালে রাজীব গান্ধীর নের্তৃত্বাধীন কংগ্রেস সরকারের পতন ঘটিয়ে ভিপি সিং এর নের্তৃত্বে মিলিজুলি সরকারের অন্যতম কারিগড় ছিলেন এই করুণানিধি।এখন যখন গোটা দেশে বিজেপি দলের একাধিপত্য তৈরি হয়ে চলেছে,তখন তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন আঞ্চলিক দল গুলোকে একত্রিত করার প্রয়াসে বার বার সক্রিয় হতে দেখা গেছিল করুণানিধিকে।আগামি সাধারণ নির্বাচনে যখন বিজেপি আটকাতে সমস্ত বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো জোট বাঁধার রাস্তা খুঁজে চলেছে তখন করুণানিধির এই চলে যাওয়া বিজেপি বিরোধী শক্তির কাছে একটা বড় ধাক্কা বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের একাংশ।দক্ষিণের দ্রাবিড় জাত্যাভিমানকে কাজে লাগিয়ে রাজনীতিতে এক চমক এনেছিলেন করুণানিধি।দ্রাবিড় জাত্যাভিমানকে সংগঠিত করে রাজনৈতিক ক্ষমতার অলিন্দে অনেকটা সময় নিজেকে অপরিহার্য করে তুলতে সমর্থ হয়েছিলেন এই দক্ষিণি দ্রাবিড় রাজনীতিক। তামিল রাজনীতিতে মাত্র কয়েক বছর আগে প্রয়াত জয়ললিতা করুণানিধির প্রধান প্রতিপক্ষ হলেও জয়ললিতা সিনেমাতে বিখ্যাত হয়েছিলেন করুণানিধির লেখা চিত্রনাট্যের জোরেই।করুণানিধির জন্ম হয় ১৯২৪ সালে।করুণানিধির পুত্র স্তালিন তামিল রাজনীতির পরিচিত মুখ।

,