ক্যামেরা অাছে না হলে রেপ করতাম , মালদার কলেজে জিকেসিআইটির প্রতিবাদী ছাত্রীদের ধর্ষণের হুমকি

বেশ কিছু দিন ধরেই মালদার কারিগরি কলেজে GKCIET  ছাত্র ছাত্রীরা বৈধ শংসা পত্রের দাবিতে আন্দোলন বিক্ষোভ করে আসছেন।কলকাতায় এসে এ্যকাডেমির সামনে রাণু ছায়া মূর্তির সামনে জনা পঞ্চাশজন লাগাতার বিক্ষোভ অবস্থান চালিয়ে যাচ্ছেন।তাঁরা প্রশাসনের সঙ্গে সমস্যা নিয়ে আলোচনা করতে চাইলেও তাঁদের আবেদনে কেউই সাড়া দেয় নি।এরই মধ্যে শুক্রবার মালদা কলেজ ক্যাম্পাসে ঢুকে পুলিশ আল্দোলনরত ছাত্র ছাত্রীদের উপর চড়াও হয় বলে অভিযোগ।এদিন মালদাতে অবস্থানরত ছাত্ররা কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছে জানতে চায় তাঁদের সমস্যা নিয়ে কর্তৃপক্ষ কী ভাবছেন! সেই সময় ছাত্র ছাত্রীদের সঙ্গে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় শুরু হয় কর্তৃপক্ষের।ছাত্রদের পক্ষ থেকে বলা হয় তাদের যেভাবে হেনস্তা করা হচ্ছে তার চেয়ে বরং তাদের গুলি করে হত্যা করে দেওয়া হোক।চূড়ান্ত হতাশা থেকেই কোন এক ছাত্র এরকম কথা বলে ফেলে বলে ছাত্রদের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে।অভিযোগ এর পরেই কর্তৃপক্ষ আন্দোলনরত ছাত্রদের উপর চড়াও হয় ও পুলিশ ডেকে তাদের মারধোর করা শুরু করে।ছাত্রীরাও এই আক্রমণের হাত থেকে রেহাই পায় নি বলে অভিযোগ।একাধিক ছাত্রীর শ্লীলতাহানিরও অভিযোগ ওঠে।এই ঘটনায় আতঙ্কিত ছাত্র ছাত্রীরা থানায অভিযোগ জানাতে গেলে স্থানীয় থানা এফআইআর নিতে অস্বীকার করে বলে অভিযোগ।আক্রান্ত ছাত্রীদের পক্ষ থেকে এমন অভিযোগও করা হয় যে কলেজ কর্তৃপক্ষের মদতপুষ্ট গুন্ডারা কলেজ ক্যাম্পাসে ঢুকে ছাত্রীদের শ্লীলতাহানি করে সোচ্চারে বলতে থাকে স্রেফ টিভি চ্যানেলের ক্যামেরা থাকায় মেয়েদের ছেড়ে দেওয়া হোল না হলে রেপ করে দেওয়া হোত।এই ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছে রাজ্যের মানবাধিকার সংগঠন এপিডিআর। GKITE এর ছাত্রছাত্রীদের উপর হামলার বিরুদ্ধে  পথে নেমে প্রতিবাদ করেছেন কলকাতার কিছু ছাত্রছাত্রীও।