৯৯%বাতিল নোট ফিরেছে ব্যাঙ্কে, নোট বাতিল করে ক্ষতি অন্তত ১১ হাজার কোটি টাকা

আগেই আঁচ পাওয়া গিয়েছিল।নোট বাতিলের জেরে প্রায় পুরো টাকাটাই ফিরে এসেছে ব্যাঙ্কের ঘরে। গত বুধবার  রিজার্ভ ব্যাঙ্কের বার্ষিক রিপোর্ট  জানাচ্ছে বাতিল নোটের ৯৯.৩ শতাংশ জমা পড়েছে ব্যাঙ্ক। বাতিল ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোটের ১৫ লক্ষ ৪১ হাজার ৮০০ কোটি টাকার  মধ্যে ১৫ লক্ষ ৩১ হাজার কোটি টাকাই ফিরে এসেছে ব্যাঙ্কে। এর মানে ১০২৭০ কোটি টাকার বাতিল হওয়া ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট অার ব্যাঙ্কে ফিরে অাসেনি। প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী এক টুইটে জানিয়েছিলেন নতুন নোট ছাপতে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের খরচ  ছাপতে প্রায়১ হজার কোটি টাকা। বিশেষজ্ঞদের একাংশের মতে নতুন নোট ছাপতে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের খরচ হয়েছিল প্রায় ১৭ হাজার কোটি টাকা। এর সঙ্গে রয়েছে এটিএম ক্যালিবারেশন ও অন্যান্য খরচ। তাও কয়েকশো কোটির কম নয়। তাই সব মিলিয়ে পুরনো ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট বাতিল করে সরকার বা রিজার্ভ ব্যাঙ্কের অায়ের থেকে ব্যয়  হলো ১১ হাজার কোটি টাকারও বেশি।  

নোট বাতিলের পক্ষে ওকালতি করে বিজেপি ঘেঁষা অর্থনীতিবিদরা  প্রথম দিকে  দাবি করেছিলেন আনুমানিক ৩  লক্ষ কোটি টাকার মত বাতিল নোট আর ব্যাঙ্কে ফিরবে না। ফলে অর্থনীতি থেকে ৩ লক্ষ কালো টাকা মুছে যাবে। এ কালো টাকা মুছে যায় নি তবে নোট বন্দির জেরে লাইনে দাঁড়িয়ে অন্তত ১০৪জন চিরতরে মুছে গেছেন এই পৃথিবী থেকে।এর দায় কি প্রধানমন্ত্রী নেবেন?