পুলিশের হাতে ডাক্তার নিগ্রহ- সম্মিলিত প্রতিবাদের প্রস্তুতি ডাক্তার সংগঠনগুলির

বুধবার একটি বেসরকারি হাসপাতালে যাদবপুর থানার ওসি যেভাবে এক ডাক্তারের উপর চড়াও হয়ে,তাঁকে মারধোর করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে  তাতে ক্ষুদ্ধ রাজ্যের অধিকাংশ ডাক্তার সংগঠন।অবিলম্বে ওই অভিযুক্ত পুলিশ অফিসারের শাস্তির দাবিতে প্রতিবাদে নামার প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে একাধিক চিকিত্সক সংগঠন।ওয়েষ্টবেঙ্গল ডাক্টরস ফোরামের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে রাজ্যে ক্লিনিক্যাল এসটাব্লিশমেন্ট এ্যাক্ট-অনুযায়ী অবিলম্বে ঐ অফিসারের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করতে হবে।একাধিক চিকিত্সক সংগঠন ঐ পুলিশ অফিসারের গ্রেপ্তারের দাবি তুলেছে।অভিযোগ, দক্ষিণ কলকাতার এক বেসরকারি হাসপাতালে হাতের লিগামেন্ট ছিঁড়ে যাওয়ায় যাদবপুর থানার ওসি পুলক দত্ত ভর্তি হয়েছিলেন দিন কয়েক আগে,বুধবার তাঁকে দেখতে  ডাক্তার স্রীনিবাসন চেদ্দাস যখন আসেন তখন ঐ চিকিত্সকের সঙ্গে পুলিশ অফিসারের কোন একটা বিষয় কথা কাটাকাটি শুরু হয়।এরপরেই যাদবপুর থানার ওসি পুলক দত্ত চিকিত্সকের উপর চড়াও হন বলে অভিযোগ।চিকিত্সককে ঘুষি মারা হয়,তাঁর গলা টিপে ধরা হয়।আহত চিকিত্সককে হাসপাতালে ভর্তি করিয়ে শ্রশ্রুষা শুরু হয়।এর পরেই ঐ বেসরকারি হাসপাতালের সমস্ত চিকিত্সকরা কাজ বন্ধ করে দেন নিরাপত্তার দাবিতে।গোটা বিষয়টি নিয়ে গোটা চিকিত্সক অংশের মধ্যেই তীব্র ক্ষোভের সঞ্চার হয়।যে পুলিশেরই ডাক্তারদের নিরাপত্তা দেওয়ার দায়িত্ব তাঁদের হাতেই এই ডাক্তার নিগ্রহ নিয়ে সমস্ত ডাক্তার সংগঠনগুলিই সোচ্চার হয়ে ওঠেন।গোটা ঘটনায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর বিবৃতি দাবি করেছে একাধিক ডাক্তার সংগঠন।এই্ ঘটনায় অভিযুক্ত পুলিশ অফিসারের শাস্তি না হলে সম্মিলিতভাবে প্রতিবাদের রাস্তায় নামার হুশিযারি দিয়েছে ওয়েষ্টবেঙ্গল ডক্টরস ফোরাম সহ একাধিক ডাক্তার সংগঠন।

,