মাঝ অাকাশে জেটের বিমানে অক্সিজেনের অভাব। দায় এড়াতেই কি বলির পাঁঠা বিমানকর্মীরা?

0
10

বৃহষ্পতিবার জেট এয়ারওয়েজের মুম্বই থেকে জয়পুরগামী বিমানে কেবিন প্রেসার কমে যাওয়া দুর্বিসহ হয়ে ওঠে বিমানে সওয়ার যাত্রীদের অবস্থা। অক্সিজেনের মাত্রা কমে যাওয়া নাক-মুখ দিয়ে রক্ত বেরোতে থাকে অনেক যাত্রীদের। বিমান ফিরিয়ে অানা হয় মুম্বইতে। ১৬৬ জন যাত্রীর মধ্যে ৩০জনকে ভর্তি করা হয়ছে হাসপাতালে। দুর্ঘটনার জন্য দুঃখপ্রকাশ করা হয়েছে জেটের তরফে। অাপাতত ডিউটি থেকে বসিয়ে দেওয়া হয়েছে বিমানে থাকা কর্মীদের। তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে জেটের তরফে। পাশাপাশি অসামরিক উড়ান মন্ত্রকের তরফে DGCAকেও তদন্ত করে সরকারের কাছে দ্রুত রিপোর্ট জমা দিতে বলা হয়েছে।  মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী কেবিনে প্রেসার বজায় রাখার একটি সুইচ নাকি টিপতে ভুলে যান  বিমানকর্মীরা। অার তাতেই এই বিপত্তি। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে যদি সুইচটা এতটাই গুরুত্বপূর্ণ  হয়   তাহলে ক্রস চেকের  কি কোন ব্যবস্থা ছিল না? নাকি বিমানে গলদ অাড়াল করতেই তড়িঘড়ি বিমানকর্মীদের বলির পাঁঠা বানাতে চাইছে জেট কর্তৃপক্ষ? এদেশের মধ্যবিত্তদের একটা অংশ সরকারি সংস্থাকে গালি না দিয়ে ভাত খান না। তাদের মতে সব বেহাল অবস্থার একমাত্র দাওয়াই হল বেসরকারি করণ। তাহলে জেটের এদিনের এই মারাত্মক ভুলের পর কী বলবনে?