মাঝেরহাট ব্রিজ বিপর্যয়ের পর এবার শিলিগুড়িতে ভেঙে পড়ল ব্রিজ

মাঝেরহাট ব্রিজ বিপর্যয়ের আতঙ্ক সরতে না সরতেই আবার ব্রিজ বিপর্যয়।এবার শিলিগুড়ির ফাঁসিদেওয়াতে,শুক্রবার সকালে আচমকাই এখানকার একটি ব্রিজ ভেঙে পড়ে।কোন মৃত্যুর ঘটনা না ঘটলেও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন এই ঘটনায়।ফাঁসিদেওয়া এলাকার এই ব্রিজ ভেঙে পড়ায় একটা বড় অংশের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে শুক্রবার সকাল থেকে।প্রসঙ্গত বৃহস্পতিবারই এক উচ্চপর্যায়ের প্রশাসনিক বৈঠকের পর মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেছেন রাজ্যেের সব ব্রিজগুলোই পর্যবেক্ষণ করা হবে,তার জন্য একটা কমিটি তৈরি করে দেওয়া হয়েছে।শুক্রবার আবার একটি ব্রিজ ভেঙে পড়া দেখে বোঝা যাচ্ছে সর্বত্রই ব্রিজের রক্ষণাবেক্ষণে ফাঁকি আছে।এ বিষয়ে দায়িত্ব প্রাপ্ত দপ্তর তাদের দায়িত্ব সঠিক ভাবে পালন করছে না।এদিকে শিলিগুড়ির ফাঁসিদেওয়াতে ব্রিজ ভেঙে পড়ার দায় কার তা নিয়েও শুরু হয়েছে চাপানউতোর,রাজ্যের মন্ত্রী গৌতম দেব এর জন্য দায় চাপিয়েছেন পুর্বতন বাম সরকারের উপর,কারণ তাঁর মতে এই ব্রিজ তৈরি হয়েছিল সেই সময়,তাছাড়া এখন স্থানীয় প্রশাসনের দায়িত্বেও বামেরাই রয়েছেন।তবে স্থানীয় সিপিএম নেতা জীবেশ সরকার বলেছেন তাঁরা ঐ ব্রিজের মেরামতির জন্য অনেকদিন ধরেই রাজ্য সরকারের কাছে অর্থের দাবি জানিয়ে আসছেন,কিন্তু পৌর পরিষেবার দায়িত্বে বামেরা থাকায় রাজ্য সরকার বিষয়টিকে গুরুত্ব দেয়নি।এই দায় ভাগাভাগির খেলায় সাধারণ মানুষের জীবন যে ভয়াবহ বিপদের মুখে পড়ে বার বার,তা বুঝেও সাধারণ মানুষের কিছুই করার থাকে না।ক্ষমতার রাজনীতির কাছে সাধারণ মানুষের এই অসহায় আত্মসমর্পনই এদেশের গণতন্ত্রের সব চেয়ে বড় দুর্বলতা বলে মত অধিকাংশ রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের।

,