ঘোষণা সত্ত্বেও দাঁড়াল না ট্রেন , ধন্ধুমার সোদপুর স্টেশনে

ঘোষণা করা হয়েছিল সোদপুর স্টেশনে দাঁড়াবে গ্যালোপিং ট্রেন,কিন্তু না দাঁড়িয়ে ট্রেন চলে যায়।বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন যাত্রীরা।এমনকী এভাবে ঘোষণা সত্ত্বেও ট্রেন চলে যাওয়ায় দুর্ঘটনার আতঙ্কও ছড়িয়ে পড়ে মুহূর্তে।আর তাতেই ধন্ধুমার বেধেঁ যায় সোদপুর স্টেশন চত্ত্বরে।শনিবার সকাল থেকে সোদপুরে এই ঘটনার জেরে প্রায় পৌনে তিন ঘন্টা ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।শনিবার থেকে বাজ্যের বিভিন্ন শাখার ট্রেন লাইনে সিগন্যালিং ব্যবস্থা উন্নত করার লক্ষ্যে লোকাল ট্রেন চলাচলে কিছু সময়ের বদল হবে,কিছু ট্রেন বাতিল হবে,রেলের তরফে এই ঘোষণা আগেই করা হয়েছিল।সেই অনুযায়ী হয়রানির কথা মাথায় রেখেই নিত্য যাত্রীরা বাড়ি থেকে বেড়িয়েছিলেন।তবে সোদপুরে যে কান্ড ঘটল তাতে অবাক নিত্যযাত্রীরা।ঘোষণা করা হয় গ্যালপিং ট্রেন দাঁড়াবে,সেই মত সবাই স্টেশনে অপেক্ষা করতে থাকেন কিন্তু ট্রেন স্টেশনে ঢুকে দ্রুত বেড়িয়ে যায় বলে যাত্রীদের অভিযোগ।এর পর ক্ষোভে ফেটে পড়েন যাত্রীরা স্টেশন ভাঙচুড় করা শুরু করেন।লাইনে বসে পড়ে শুরু হয় অবরোধ।এর ফলে বন্ধ হয়ে যায় ট্রেন চালাচল।পরে রেল পুলিশ ও যাত্রীদেরই একাংশের উদ্যোগে অবরোধ উঠে য়ায়।ঘোষণা করা সত্ত্বেও কেন ট্রেন থামল না তা নিয়ে রেল কর্তৃপক্ষের মধ্যেও অস্বস্তি শুরু হয়।এর ফলে বড় কেন দুর্ঘটনা ঘটলে কে দায় নিত তা নিয়েও চলে আলোচনা।এই ঘটনার জেরে স্টেশন মাস্টার সাসপেন্ড হতে পারেন বলে খবর।তবে গোটা ঘটনায় আবারও প্রমাণ হল এদেশের রেল ব্যবস্থার ছন্নছাড়া দশা।এতদিনেও কেন অত্যাধুনিক সিগন্যাল ব্যবস্থা তৈরি করা যায় নি তা নিয়েই বা প্রশ্ন উঠবে না কেন!

,