আবার ধর্ষিতার চরিত্র নিয়ে কটাক্ষঃ ধর্ষিতা সন্ন্যাসিনীকে যৌনকর্মী বললেন কেরলের বিধায়ক

ধর্ষিতার চরিত্র নিয়ে কটাক্ষের কোন বিরাম নেই এদেশে।সময় পাল্টায়,স্থান পাল্টায় কিন্তু মহিলাদের নিয়ে ভাবনা পাল্টায় না।এ রাজ্যে পার্কস্ট্রিট ধর্ষন কান্ডের পর ধর্ষিতা সুজেট জর্ডনের চরিত্র নিয়ে কটাক্ষ করতে ছাড়েন নি রাজ্যের মন্ত্রী থেকে মাননীয় সাংসদও,ধর্ষণের অপরাধ লঘু করতে বলা হয়েছিল যে মহিলা অত রাতে পানশালায় যায়,তার আবার সতীত্ব কিসের!রাজ্যের শাসক দলের এক মহিলা সাংসদ বলেছিলেন কাস্টমারের সঙ্গে দেনা পাওনা নিয়ে সমস্যার জেরেই একটা ঘটনা ঘটেছে।শাসক দলের এক সাংস্কৃতিক বোধওয়ালা নাট্য ব্যক্তিত্ব তো আবার সে সময় ধর্ষণের পেক্ষিত খোঁজার পরামর্শ দিতেও ছাড়েন নি।সেই একই ট্রাডিশন এবার কেরলাতেও।সম্প্রতি সেখানে এক চার্চের বিশপের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেন সেখানকারই এক সন্ন্যাসিনী।তাঁর অভিযোগ নানা সমযে কাজের জন্য ডেকে সেই বিশপ তাঁকে একাধিকবার ধর্ষণ করেছেন।কেরলার বিধায়ক পিসি জর্জ এই ঘটনায় বিশপের পক্ষ নিয়ে বলেন যে মহিলা প্রথমবার ধর্ষণের পর চুপ থেকে যান একাধিকবার ধর্ষণের পর অভিযোগ করেন তিনি তো আসলে একজন পেশাদার যৌনকর্মী।বিধায়কের এই কথায় রাজ্য জুড়ে বিতর্কের সূচনা হয়েছে।অনেকেই প্রতিবাদে পথে নেমেছেন।পিসি জর্জের বিধায়ক  পদ খারিজের দাবিও উঠতে শুরু করেছে।মহিলা কমিশনের চেয়ারম্যান রেখা শর্মা এই ঘটনায় অবিলম্বে রাজ্য প্রশাসনকে ব্যবস্থা নিতে বলে চিঠি দিয়েছেন।অভিযুত্ক চার্চের বিশপ নানা সময়ে মহিলাদের অসহায়তার সুযোগ নেন বলে অভিযোগ ওঠায় ঐ চার্চের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরুর দাবিও উঠতে শুরু করেছে।

,