CBSE টপারকে গণধর্ষণে গ্রেফতার মূল অভিযুক্ত

 CBSE টপার বর্তমানে কলেজ পড়ুয়া ১৯ বছরের  ছাত্রীর গণধর্ষণের ঘটনায় মূল  নিসু পোগাটকে গ্রেফতার করেছে পুলিস। গ্রেফতার করা হয়েছে ধর্ষণের সময় হাজির এক হাতুড়ে চিকিত্সকেও। যেখানে এই ধর্ষণ করা হয়েছে সেই বাড়ির মালিককেও গ্রেফতার করেছে পুলিস। তবে এখন অধরা অন্য দুই  প্রধান অভিযুক্ত। । যাক মধ্যে পঙ্কজ ফৌজি নামে এক সেনা জওয়ান ও রয়েছে। অপহরণ করে ধর্ষণ করল কয়েকজন দুষ্কৃতী। যদিও ছাত্রীর পরিবারে তরফে অভিযোগ ধর্ষণের পর যখন অভিযুক্তরা রাস্তায় ঘুরে বেরাচ্ছিল তখন পুলিস তাদের ধরেনি। পড়ুয়ার অভিযোগ  দিন কয়েক অাগে টিউশন  যাওয়ার পথে তাঁকে   অপহরণ করে যারা তাকে ধর্ষণ করে তারা সকলেও তার গ্রামের পরিচিত। পুলিস প্রথমে এফঅাইঅার নিতে রাজি হচ্ছিল না,টালবাহানার পর অভিযোগ নেয় থানা। এদেশে কোথাও মহিলার সুরক্ষিত নন। সমাজের কোন অংশের মহিলারাই অাজ নিরাপদ নন। নির্ভয়ার ঘটনায় দেশ উত্তাল হলেও প্রতিদিন দেশের নানা প্রান্তে এমন কি বড় শহরের সমাজের প্রতিষ্ঠিত পরিবারের  মহিলারা যৌন অত্যাচারের শিকার। এর অাগে ২০১৭ সালের নভেম্বরে ভূপালে অাইএএস পরীক্ষার প্রস্তুতি নেওয়া এক ছাত্রীকেও ৩জন পালা করে ধর্ষণ করে। ধর্ষণ শুধু অাইন করে ঠেকানো যায় কি না তা নিয়েও উঠছে প্রশ্ন। সব থেকে বড় প্রশ্ন হচ্ছে রাজনৈতিকদল গুলির প্রশ্রয় ও অাশ্রয় ছাড়া এই সব কাজ কি অাদৌ চলতে পারে?